বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মানুষকে বিপদে ফেলছেন মমতা, সংক্রমণ বাড়লে দায় নিতে হবে তাঁকেই: সুজন
সুজন চক্রবর্তী। ফাইল ছবি
সুজন চক্রবর্তী। ফাইল ছবি

মানুষকে বিপদে ফেলছেন মমতা, সংক্রমণ বাড়লে দায় নিতে হবে তাঁকেই: সুজন

  • সুজন বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী নিজে নিরাপদে থেকে পুজোর উদ্বোধন করছেন। আর যেখানে উদ্বোধন হচ্ছে সেখানে মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন। ফলে সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়ছে।’

মুখ্যমন্ত্রীর ভার্চুয়াল পুজো উদ্বোধনকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন বিধানসভায় বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। রাজনৈতিক ফয়দা কুড়াতে মানুষকে বিপদে ফেলে মুখ্যমন্ত্রী উৎসবে মেতেছেন বলে এদিন মন্তব্য করেন তিনি। সঙ্গে শারদোৎসবের আয়োজন নিয়ে বৃহস্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টের পর্যবেক্ষণকে সঠিক বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। 

বুধবার থেকে কলকাতা ও জেলার বিভিন্ন পুজোর উদ্বোধন করছেন মমতা। নবান্ন সভাঘর থেকে ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে একের পর এক পুজোর উদ্বোধন করছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর পুজো উদ্বোধনকে সরাসরি আক্রমণ করে বৃহস্পতিবার সুজন বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী নিজে নিরাপদে থেকে পুজোর উদ্বোধন করছেন। আর যেখানে উদ্বোধন হচ্ছে সেখানে মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন। ফলে সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়ছে।’ সুজনের দাবি, ‘পুজোর মঞ্চকে ব্যবহার করে নিজের রাজনৈতিক প্রচার করছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর আচরণ শারদোৎসবের কৌলিণ্য নষ্ট করছে।’

সুজনবাবু বলেন, ‘গণেশ চতুর্থী হোক বা ইদ, বাংলার মানুষ ঘরে বসেই পালন করেছেন। তার পরেও সংক্রমণ এখনো বেড়েই চলেছে। ওদিকে ওনম উজ্জাপনের ফল টের পাচ্ছে কেরল। তা থেকে কোনও শিক্ষা নেননি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী।’ সুজনের দাবি, ‘পুজোর পর করোনা সংক্রমণ বাড়লে তার দায় নিতে হবে মমতাকে।’

বলে রাখি, মুখ্যমন্ত্রীর ভার্চুয়াল পুজো উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বহু জায়গায় সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং মানা হচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। তাছাড়া 

এদিন আদালতের পর্যবেক্ষণকে সমর্থন করেছেন সুজনবাবু। তিনি বলেন, ‘আদালত সঠিক প্রশ্ন তুলেছে। মানুষের করের টাকা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত হচ্ছে কি না তা জানা দরকার। সরকার কোথা থেকে এই টাকা জোগাড় করল তারও হিসাব দিতে হবে আদালতে।’

 

বন্ধ করুন