বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Ration: বেড়েছে গ্রাহক সংখ্যা, রেশন দোকান বাড়াতে কেন্দ্রকে আবেদন রাজ্যের
রেশন দোকান। ফাইল ছবি  (PTI)

Ration: বেড়েছে গ্রাহক সংখ্যা, রেশন দোকান বাড়াতে কেন্দ্রকে আবেদন রাজ্যের

  • খাদ্য দফতরের এক আধিকারিকের কথায়, গত ৯ বছরে জনসংখ্যা অনেক বেড়েছে। তবে রেশন দোকান সেই হারে বাড়েনি। তাই রাজ্যের খাদ্য সচিব পারভেজ আহমেদ সিদ্দিকি রেশন দোকান বাড়ানোর জন্য কেন্দ্রের কাছে চিঠি লিখেছেন।

জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা প্রকল্পের অধীনে রাজ্যে রেশন গ্রাহকের সংখ্যা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু, সেই হারে রেশন দোকানের সংখ্যা বাড়েনি। এই পরিস্থিতিতে গ্রাহকদের রেশন সরবরাহ করতে গিয়ে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে রাজ্যকে। তাই রেশন দোকানের সংখ্যা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন বলে মনে করছে রাজ্য সরকার। তার পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্র সরকারকে রেশন দোকান বাড়ানোর আবেদন জানাল রাজ্য।

খাদ্য দফতর সূত্রে খবর, বর্তমানে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের আওতায় প্রায় ৬ কোটি মানুষকে রেশন দেওয়া হয়। বাকি মানুষকে রাজ্য সরকারের প্রকল্পের আওতায় রেশন দেওয়া হয়। এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে জনসংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে গ্রাহকের সংখ্যাও বাড়ছে। রেশন দোকান পর্যাপ্ত অনুপাতে না থাকায় ভিড় বাড়ছে গ্রাহকদের। খাদ্য দফতরের এক আধিকারিকের কথায়, গত ৯ বছরে জনসংখ্যা অনেক বেড়েছে। তবে রেশন দোকান সেই হারে বাড়েনি। তাই রাজ্যের খাদ্য সচিব পারভেজ আহমেদ সিদ্দিকি রেশন দোকান বাড়ানোর জন্য কেন্দ্রের কাছে চিঠি লিখেছেন। ২০১৩ সালে কেন্দ্রীয় প্রকল্প শুরু হয়েছিল। বিভিন্ন রাজ্যের রেশন দোকানের কোটা নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়েছিল ২০১১ সালে। তবে জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে তাল মিলিয়ে সেই কোটা আর বাড়েনি।

সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় খাদ্য সচিব সুধাংশু পান্ডে কিছুদিন আগেই কলকাতা এসে রাজ্যের খাদ্য দফতরের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন। সেই বৈঠকে দোকানের কোটা বৃদ্ধির করার জন্য কেন্দ্রীয় খাদ্য সচিবের সঙ্গে আলোচনা করেছিলেন রাজ্যের খাদ্য দফতরের আধিকারিকরা। একইসঙ্গে, খাদ্য সুরক্ষা আইনের আওতায় শহরাঞ্চলের ৫০ শতাংশ এবং গ্রামাঞ্চলের ৭৫ শতাংশ মানুষকে আনার আবেদন জানানো হয়েছিল। ২০১১ সালে শেষবার জনগণনা হয়েছিল। তারপর করোনা পরিস্থিতির কারণে এখনও হয়নি জনগণনা। কবে হবে নতুন করে হবে তা এখনও ঠিক হয়নি। তবে জনগণনা না হলেও রাজ্যের জনসংখ্যা বেড়েছে। তাই রেশন দোকান বাড়ানো প্রয়োজন বলে মনে করছেন রাজ্যের খাদ্য দফতরের আধিকারিকরা।

বন্ধ করুন