বাংলা নিউজ > ক্রিকেট > SA vs AUS: ৮৩ বলে ১৭৪ রান! ক্লাসেন ঝড়ে উড়ে গেল অস্ট্রেলিয়া, সিরিজে সমতা ফেরাল দক্ষিণ আফ্রিকা

SA vs AUS: ৮৩ বলে ১৭৪ রান! ক্লাসেন ঝড়ে উড়ে গেল অস্ট্রেলিয়া, সিরিজে সমতা ফেরাল দক্ষিণ আফ্রিকা

শতরান করার পরে এনরিখ ক্লাসেন (ছবি-রয়টার্স)

Heinrich Klaasen-অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে চলছে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগে এই দুই দলের মধ্যে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা দেখা যাচ্ছে। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডে জিতে সিরিজে সমতা ফেরাল দক্ষিণ আফ্রিকা। বর্তমানে সিরিজের ফল ২-২।

South Africa vs Australia 4th ODI-অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে চলছে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগে এই দুই দলের মধ্যে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা দেখা যাচ্ছে। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডে জিতে সিরিজে সমতা ফেরাল দক্ষিণ আফ্রিকা। বর্তমানে সিরিজের ফল ২-২। এর আগে পাঁচ ম্যাচের সিরিজের প্রথম দুটোতে জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া, তবে পরের দুটো ম্যাচ জিতে সিরিজ সমতায় ফেরাল দক্ষিণ আফ্রিকা। সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে দুরন্ত ক্রিকেট খেললেন তারকা প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান এনরিখ ক্লাসেন। তিনি এমন ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন, যা সকলকেই স্তব্ধ করে দিয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসের ২৬তম ওভারে ব্যাট করতে আসা এনরিখ ক্লাসেন এতটাই জমকালো ব্যাটিং করলেন যে সকলেই তাকিয়ে রইলেন। ৮৩ বলে ১৭৪ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেন তিনি। যার ফলে দক্ষিণ আফ্রিকা দল ৫০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ৪১৬ রান তোল।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে চতুর্থ ম্যাচে এনরিখ ক্লাসেন ৩৮ বলে তাঁর হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। এরপর মাত্র ৫৭ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি। অর্থাৎ হাফ সেঞ্চুরির পর সেঞ্চুরিতে পৌঁছতে তার লেগেছিল মাত্র ১৯ বল। সেঞ্চুরি পূর্ণ করার পর আরও বিপজ্জনক হয়ে ওঠেন ক্লাসেন। এরপর ৭৭ বলে ১৫০ রান পূর্ণ করেন তিনি। অর্থাৎ পরের ৫০ রান করেন মাত্র ২০ বলে। এদিন এনরিখ ক্লাসেন কোনও অস্ট্রেলিয়ান বোলারের উপর মায়া দেখাননি। দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসের শেষ ওভারের শেষ বলে ক্যাচ আউট হন তিনি। ক্লাসেন ৮৩ বলে ১৭৪ রান করেন এবং তিনি এদিন ১৩টি চার ও ১৩টি ছক্কা মেরেছিলেন। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দ্রুততম সেঞ্চুরির নিরিখে ক্লাসেনের ইনিংসটি দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে। ৫৭ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ডটি বিরাট কোহলির নামে রয়েছে, তিনি ২০১৩ সালে ৫২ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন।

এদিকে ম্যাচর কথা বললে, এদিনের ম্যাচে টস জিতে বল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। তবে মিচেল মার্শের এই সিদ্ধান্কে ভুল প্রমাণ করে অস্ট্রেলিয়া। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে এনরিখ ক্লাসেনের ১৭৪ রানের দৌলতে তারা স্কোর বোর্ডে তোলে ৪১৬ রান। কুইন্টন ডি'কক ৬৪ বলে ৪৫ রান করেন। রিজা হেন্ডরিক্স ৩৪ বলে ২৮ রান করে আউট হন। এরপরে রাসি ভ্যান ডার দাসেন ৬৫ বলে ৬২ রান করেন। দলের অধিনায়ক এডেন মার্করাম ১১ বলে ৮ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। ডেভিড মিলার ৪৫ বলে অপরাজিত ৮২ রানের ইনিংস খেলন। এর জবাবে অস্ট্রেলিয়া দল মাত্র ২৫২ রানেই গুটিয়ে যায়। অজিদের হয়ে এদিন অ্যালেক্স ক্যারি সর্বাধিক ৯৯ রানের ইনিংস খেলেন। এছাড়া টিম ডেভিড ২৫ বলে ৩৫ রান, মার্নাস ল্যাবুশান ২২ বলে ২০ রান করেন। এছাড়া অস্ট্রেলিয়ার আর কোনও ব্যাটার ২০ রান করতে পারেননি। ৩৪.৫ ওভারেই ১০ উইকেট হারায় তারা। এর ফলে ১৬৪ রানে ম্যাচটি জিতে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ম্যাচের নায়ক হয়েছেন এনরিখ ক্লাসেন।

রোহিতদের প্রস্তুতির রোজনামচা, পাল্লা ভারি কোন দলের, ক্রিকেট বিশ্বকাপের বিস্তারিত কভারেজ, সঙ্গে প্রতিটি ম্যাচের লাইভ স্কোরকার্ড বিস্তারিত ক্রীড়াসূচি - এর জন্য চোখুন HT Bangla - তে

বন্ধ করুন