বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Saayoni Ghosh: ‘আপনি সবসময় ঘেমে থাকেন কেন?’ ট্রোলারের আজব প্রশ্নের জবাব দিলেন সায়নী
সায়নী ঘোষ (ছবি-ফেসবুক) 

Saayoni Ghosh: ‘আপনি সবসময় ঘেমে থাকেন কেন?’ ট্রোলারের আজব প্রশ্নের জবাব দিলেন সায়নী

  • ট্রোলারকে যোগ্য জবাব দিলেন সায়নী ঘোষ। 

আসানসোল থেকে ভোটে জিততে না পরালেও, জনপ্রিয়তা কমেনি। বরং বেড়েই চলেছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছের মানুষ হিসেবে পরিচিত অভিনেত্রী ও তৃণমূল নেত্রী সায়নী ঘোষের কাঁধে এখন গুরু দায়িত্ব।  রাজনীতির ময়দানে কার্যত গায়েব বিজেপির হেরো প্রার্থীরা, সে জায়গায় একদম উলটো পথে হাঁটছেন সায়নী। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে যখন ত্রিপুরায় তৃণমূল পা বাড়াতে চাইছে, তখন সেখানেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন সায়নী ঘোষ। এর পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও তুমুল অ্যাক্টিভ এই অভিনেত্রী তথা জননেত্রী। 

সম্প্রতি ফেসবুকে একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন সায়নী।ছবিতে গলদঘর্ম অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে তাঁকে। মাইক হাতে বক্তব্য রাখছেন সায়নী। মাথায় তোলা রোদচশমা, পরনে সবুজ সালোয়ার কামিজ, গলায় তৃণমূলের প্রতীক সাঁটা উত্তরীয়। হাতে ঝোলানো রয়েছে কালো রঙা মাস্ক। ছবির ক্যাপশনে সায়নী লিখেছেন, ‘উত্তোলন’। 

সায়নীর সপাট জবাব

এই ছবির কমেন্ট বক্সে একজন প্রশ্ন করেন, ‘আপনি সব সময় ঘেমে থাকেন কেন..?’, ফেসবুক ফলোয়ারের এই আজব প্রশ্নের সপাট জবাব দেন সায়নী। তিনি লেখেন, ‘বিজেপির নেতাদের মতো শুধু ভোটের আগে ভাত খেতে যাই না তাই… আমার নেত্রী দ্বারা অনুপ্রাণিত। তৃণমূল স্তর থেকে কাজ করায় বিশ্বাসী, স্ট্রিট ফাইটার’। 

দিন কয়েক আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সিগারেট হাতে সায়নীর ছবি ভাইরাল হতেই প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন অভিনেত্রী, তাঁর স্পষ্ট কথা অভিনেতা-অভিনেত্রীদের এরকম বহু ছবি গুগল সার্চ করলেই পাওয়া যায়। এটার পরেও আরও অনেক সামনে আসবে। কিন্তু তিনি জানেন, সহকর্মী, সমর্থক এবং সাধারণ মানুষের কাছে যে ভালোবাসা পান তা অত্যন্ত আন্তরিক ও স্বতঃস্ফূর্ত। উলটে গোটা বিষয়টি নিয়ে বিজেপির আইটি সেলের দিকে অভিযোগের আঙুল তোলেন সায়নী।

হাজারো ব্যস্ততার মধ্যেও গভীর রাতে বাড়ি ফিরে সায়নী মায়ের সঙ্গে কীভাবে সময় কাটান, সেই ঝলক সম্প্রতি ফেসবুকে তুলে ধরেছেন নায়িকা। যেখানে দেখা যায় সায়নীর মা নিজের মেয়ের সঙ্গে 'খেলা হবে' স্লোগানে মেতেছেন। ভিডিয়োতে দেখা যায়, তাঁর মা বিস্কুট খাচ্ছেন। সেই নিয়েই কথা হচ্ছে দু'জনের মধ্যে। সায়নী তাঁর মাকে প্রশ্ন করেন, 'কটা বিস্কুট খেয়েছ?' জবাব আসে, 'পাঁচটা'। এরপরই এই কথা সেই কথার মাঝে হঠাত্ সায়নী ঘোষের মা বলে ওঠেন, 'খেলা হবে'। তারপর সায়নী নিজের মাকে হাসতে-হাসতেই জিজ্ঞেস করেন, 'কী হবে?' সায়নীর মা জবাবে ফের বলেন, 'খেলা হবে।' এরপর সায়নীকে বলতে শোনা যায়, 'জয় বাংলা।'