বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘কোভিড যোদ্ধার মর্যাদা চাই’, দাবি জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি কেবল অপারেটরদের
কোভিড যোদ্ধার মর্যাদা চেয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি
কোভিড যোদ্ধার মর্যাদা চেয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি

‘কোভিড যোদ্ধার মর্যাদা চাই’, দাবি জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি কেবল অপারেটরদের

  • কোভিড যোদ্ধার মর্যাদা চেয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি কেবল অপারেটরদের।

'কোভিড যুদ্ধের সৈনিক’ হিসেবে ঘোষণা করা হোক, দাবি জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি কেবল অপারেটর্সদের। অল বেঙ্গল কেবল টিভি অ্যান্ড ব্রডব্যান্ড অপারেটর্স ইউনাইটেড ফোরামের তরফ থেকে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে একগুচ্ছ দাবি জানানো হয়েছে। সেই দাবির মধ্যে কেবল অপারেটরদের অন্যতম দাবি, তাঁদের ‘কোভিড যুদ্ধের সৈনিক’ হিসেবে ঘোষণা করা হোক।

সেই দাবিপত্রে তাঁরা উল্লেখ করেছেন, অতিমারির প্রকোপ নিয়ন্ত্রণের উদ্দ্যেশে রাজ্য সরকারের আদেশে লাগু করা হয়েছে বেশ কয়েকটি নিয়ম। লকডাউনের সময় গৃহবন্দি মানুষের মনোরঞ্জনের ব্যবস্থা ও খবর পৌঁছে দেওয়ার জন্য জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন স্থানীয় কেবল টিভি ও ব্যান্ড অপারেটর্সরা। প্রথম সারির কোভিড ওয়ারিওর ডাক্তার, নার্স, পুলিশ কর্মী ও সাফাইকর্মীদের মতোই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন তাঁরা। পরিষেবা অক্ষুণ্ণ রাখার চেষ্টায় বহু কেবল অপারেটর ও কর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আবার অনেকে মারাও গেছেন।

যদিও এই সমস্ত কিছুর পরেও নিরবচ্ছিন্ন ভাবে পরিষেবা দেওয়ার কাজ চালিয়ে গেছেন তাঁরা। এই পরিষেবার মাধ্যমে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ ও ‘অনলাইন ক্লাস’ করার ক্ষেত্রেও বড় ভূমিকা পালন করেছেন তাঁরা বলে জানান। এসব জানিয়ে ইতিমধ্যে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন তাঁরা। সঙ্গে সরকারের কাছে তাঁদের বিনামূল্যে টিকা দেওয়ার দাবি করেছেন। কেবল অপারেটরদের জন্য অনলাইন পেমেন্ট চালুর ব্যবস্থা করার কথা দাবিতে উল্লেখ করেছেন।

সংগঠনের সহ আহ্বায়ক তাপস দাস বলেন, তাঁরা যেমন সামনের সারিতে থেকে মানুষকে যেমন বিনোদনের পরিষেবা দিচ্ছেন, তেমনই গ্রাহকদের ইন্টারনেট পরিষেবা দিতে প্রতিদিন ছুটোছুটি করছেন। এমতাবস্থায় যে ভাবে প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে তাঁদের কাজ করতে হচ্ছে, তাতে তাঁরা কোভিড যোদ্ধার মর্যাদা দাবি করতেই পারেন।

বন্ধ করুন