বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বিয়েবাড়ি সেরে ফেরার পথে ট্রাকের পিছনে ধাক্কা এসইউভির, নিহত ১৪
রাতের অন্ধকারে রাস্তার উপরে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকটি দেখতে না পেয়ে পিছনে এসে সজোরে ধাক্কা মারেন এসইউভি চালক।
রাতের অন্ধকারে রাস্তার উপরে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকটি দেখতে না পেয়ে পিছনে এসে সজোরে ধাক্কা মারেন এসইউভি চালক।

বিয়েবাড়ি সেরে ফেরার পথে ট্রাকের পিছনে ধাক্কা এসইউভির, নিহত ১৪

  • রাতের অন্ধকারে রাস্তার উপরে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের সঙ্গে যাত্রীবাহী গাড়ির সংঘর্ষে প্রাণ হারালেন ৬টি শিশু-সহ মোট ১৪ জন।

বৃহস্পতিবার মাঝরাতে উত্তর প্রদেশের প্রতাপগড়ে রাস্তার উপরে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের সঙ্গে যাত্রীবাহী গাড়ির সংঘর্ষে প্রাণ হারালেন ৬টি শিশু-সহ মোট ১৪ জন। 

উত্তর প্রদেশ পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, নিহতরা সকলেই এক পরিবারের সদস্য এবং তাঁদের আত্মীয়। বিয়ের অনুষ্ঠান সেরে ফেরার পথে তাঁরা দুর্ঘটনার শিকার হন। 

দুর্ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। একই সঙ্গে নিহত ও আহতদের পরিবারকে যথাযথ সাহায্য করতে তিনি আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছেন।

রাজ্য পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, লখনউ-প্রয়াগরাজ হাইওয়ের উপরে মানিকপুরের কাছাকাছি গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পথের ধারে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের পিছনে সজোরে ধাক্কা মারে। 

প্রতাপগড়ের পুলিশ সুপার অনুরাগ আর্য জানিয়েছেন, প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে যে, নবাবগঞ্জ এলাকার শেখপুর গ্রামে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বাড়ি ফেরার সময় রাত ১১.৪৫ নাগাদ মানিকপুর থানার অন্তর্গত দেশরাজ কা ইনারা গ্রামের কাছে এসইউভি-র আরোহীরা দুর্ঘটনার কবলে পড়েন। তাঁর দাবি, রাস্তার উপরে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকটি দেখতে না পেয়ে পিছনে এসে সজোরে ধাক্কা মারেন এসইউভি চালক। 

ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুলিশ দুর্ঘটনাগ্রস্ত গাড়ির ভিতর থেকে যাত্রীদের উদ্ধার করে কুন্ডার সমবায় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে তাঁদের মৃত অবস্থায় আনা হয়েছে বলে জানানো হয়। 

দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে রয়েছেন দীনেশ কুমার (৪০), পবন কুমার (১০), দয়ারাম (৪০), আমন (৭), রামসমঝ (৪০), গৌরব কুমার (১০), নান ভাইয়া (৫৫), শচীন (১২), হিমাংশু (১২), মিথিলেশ কুমার (১৭), অভিমন্যু (২৮), পারশনাথ (৪০) এবং এসইউভি চালক বোলেরো বাবলু (২২)। তাঁদের মধ্যে ১২ জন জিগরাপুর গ্রামের বাসিন্দা। চালক-সহ বাকি দুই আরোহী অন্য গ্রামের অধিবাসী।

বন্ধ করুন