প্রহৃত স্বাস্থ্যকর্মী
প্রহৃত স্বাস্থ্যকর্মী

COVID-19 নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে গিয়ে প্রহৃত স্বাস্থ্যকর্মী, দুষলেন ধর্মীয়স্থান থেকে করা ঘোষণাকে

এই ঘটনার কড়া নিন্দা করছেন কর্নাটকের মন্ত্রীরা।

করোনাভাইরাস নিয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে গিয়ে প্রহৃত হলেন এক ASHA কর্মী। কর্নাটকের বেঙ্গালুরুতে এই ঘটনা নিয়ে এখন সরগরম সেই রাজ্যের রাজনীতি। ঘটনার কড়া নিন্দা করেছেন উপ-মুখ্যমন্ত্রী সহ অন্যান্যরা।

একজন ASHA কর্মীর ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেখানে দেখা যাচ্ছে সেই কর্মী বলছেন যে হেগডে নগরে কাজ করতে গিয়ে বাঁধা পান তাঁরা। ওই অঞ্চলে জনসচেতনতা ও সম্ভাব্য করোনারোগী চিহ্নিত করতে গিয়েছিলেন তাঁরা, বলে জানিয়েছেন কৃষ্ণাবেনু । পাঁচ বছর ধরে ASHA কর্মী হিসাবে কাজ করেছেন তিনি।

তিনি বলেন যে প্রায় একশোজন লোক এসে তাদের কাজে ব্যাঘাত ঘটেন। কাছের এক ধর্মীয়স্থল থেকে ঘোষণার পরেই লোকজন জমায়েত হয়ে যায় বলে অভিযোগ তাঁর। যারা এই উস্কানি দিয়েছেন তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত বলে দাবি করেছেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বি শ্রীরামুলু বলেছেন যে স্বাস্থ্যকর্মীরা ভগবানের মতো। তাদের কোনও অপমান, হেনস্থা করলে সরকার বসে থাকবে না বলে জানিয়েছেন তিনি। উপমুখ্যমন্ত্রী অশ্বনাথ নারায়ণ ওই ASHA কর্মীর বাড়িতে গিয়েছিলেন তাঁর শরীরের অবস্থা জানতে।

কর্নাটকে সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী এখনও করোনায় আক্রান্ত ১১০। মারা গিয়েছেন তিনজন। দেশে করোনায় আক্রান্ত ১৯৬৫, মৃত্যু হয়েছে ৫০ জনের। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকেই স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহারের খবর পাওয়া যাচ্ছে। তাতে জুড়ল বেঙ্গালুরুর নাম।

বন্ধ করুন