বাড়ি > ঘরে বাইরে > আয়ত্তে সংক্রমণ, করোনার আতুরঘর উহান ঘুরে ঘোষণা প্রেসিডেন্ট জিনপিংয়ের
মঙ্গলবার উহানে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের দেখতে হাসপাতালে যান প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।
মঙ্গলবার উহানে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের দেখতে হাসপাতালে যান প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

আয়ত্তে সংক্রমণ, করোনার আতুরঘর উহান ঘুরে ঘোষণা প্রেসিডেন্ট জিনপিংয়ের

  • মাস্ক মুখে উহানে প্রেসিডেন্টের উপস্থিতিতেই বোঝা গিয়েছে, শেষ পর্যন্ত covid-19-কে আয়ত্তে আনতে সফল হয়েছে বেজিং।

করোনাভাইরাসের আতুরঘর উহানেই রোধ করা গিয়েছে সংক্রমণ। মঙ্গলবার ঘোষণা করলেন চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

এ দিন সকালে মাস্ক মুখে উহানে প্রেসিডেন্টের উপস্থিতিতেই বোঝা গিয়েছে, শেষ পর্যন্ত covid-19-কে আয়ত্তে আনতে সফল হয়েছে বেজিং। গত কয়েক দিনে চিনে মারণভাইরাসের দাপটে মৃত্যুর সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে কমায় এবং আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে আসার পরে এই বিষয়ে আশার আলো দেখা গিয়েছিল।

গত ২৩ জানুয়ারি থেকে নিষিদ্ধ নগরীর তকমা পাওয়া উহানে এ দিন স্বয়ং প্রেসিডেন্ট সশরীরে হাজির হওয়ায় ভাইরাস সংক্রমণ রোখার বিষয়ে চিন সরকারের মনোবলের ইঙ্গিত স্পষ্ট পাওয়া গিয়েছে।

এর আগে সংক্রমণের প্রাণকেন্দ্র উহান তথা হুবেই প্রদেশে সর্বোচ্চ প্রশানিক নেতা হিসেবে পা রেখেছিলেন চিনের প্রিমিয়ার লি কেকিয়াং। গত জানুয়ারি মাসে covid-19 যখন প্রায় মহামারীর রূপ নিয়েছে, সেই সময় অভিশপ্ত শহরে এসেছিলেন কেকিয়াং।

সংক্রমণ রুখতে মাত্র নয় দিনে তৈরি হাসপাতালে এ দিন পৌঁছন প্রেসিডেন্ট জিনপিং। চিনের সরকারি সংবাদমাধ্যম প্রকাশিত ছবিতে দেখা যায়, রোগীদের সঙ্গে হাসপাতালে আলাপচারিতায় ব্যস্ত জিনপিংকে। এরপর তিনি ভিডিও লিঙ্ক মারফৎ চিকিৎসক ও হাসপাতাল কর্মীদের সঙ্গেও কথা বলেন।

উহানে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের এই সফর বিশ্বের উদ্দেশে বার্তা দিয়েছে যে, রোগের দাপট রুখতে যথেষ্ট সফল হয়েছে প্রশাসন। এর আগে মহামারী রোধ করার ব্যাপারে চিন সরকারের গাফিলতি ও উদ্যোগের অভাব নিয়ে সোচ্চার হয় আন্তর্জাতিক মিডিয়া।

এ দিনের হিসেব অনুযায়ী, সমগ্র চিনে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮০,৭৫৪। এর মধ্যে শুধুমাত্র হুবেই প্রদেশের বাসিন্দা রয়েছেন ৬৭,৭৬০ জন। covid-19-এর কারণে মৃতের সংখ্যা আপাতত ৩,১৩৬, যার মধ্যে হুবেইতে মারা গিয়েছেন ১১২ জন।

বন্ধ করুন