বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ফ্ল্যাটের সিঁড়িতেই কাটিয়ে দিলেন এক সপ্তাহ, ভাড়াটিয়া তুলতে অভিনব পথ দম্পতির
এভাবে ফ্ল্যাটের সিঁড়িতেই দিন কাটাচ্ছিলেন দম্পতি। সংগৃহীত ছবি

ফ্ল্যাটের সিঁড়িতেই কাটিয়ে দিলেন এক সপ্তাহ, ভাড়াটিয়া তুলতে অভিনব পথ দম্পতির

  • দম্পতির দাবি, নিয়ম মেনেই সব করেছিলাম। কিন্তু ওরা উঠতে চাইছিলেন না। পুলিশকেও জানিয়েছিলাম। পুলিশ জানিয়ে দেয় সিভিল ম্যাটার। কোর্টে চলে যান।

অমানবিক ঘটনা গ্রেটার নয়ডা সোসাইটিতে। এক প্রবীন দম্পতিকে এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ফ্ল্যাটের বাইরে সিঁড়িতে কাটাতে হয়েছে। শেষ পর্যন্ত বৃহস্পতিবার রাতে তাঁরা ফ্ল্যাটে ঢুকতে পেরেছেন। কেন তাঁদের এই পরিস্থিতি?

একটি সর্বভারতীয় ইংরাজি সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, সুনীল কুমার ও রাখী গুপ্তা নামে ওই দম্পতির একটি আবাসনের ১৫ তলায় একটি ফ্ল্যাট রয়েছে। কিন্তু ভাড়াটিয়া মহিলার সঙ্গে বিবাদের জেরে তাঁরা ওই ফ্ল্যাটে ঢুকতে পারছিলেন না। ওই ফ্ল্যাটের মালিকের দাবি, মাস খানেক আগেই ভাড়াটিয়ার সঙ্গে তাঁদের ভাড়ার এগ্রিমেন্ট শেষ হয়ে গিয়েছে। তারপরেও ভাড়াটিয়া কিছুতেই উঠছিল না।

শেষ পর্যন্ত ফ্ল্যাটে ঢুকতে পেরেছেন ওই দম্পতি। তবে ভাড়াটিয়ারা এখনও জিনিসপত্র বের করে নিয়ে যাননি। তারা সময় চেয়েছেন। তাতে রাজি হয়েছেন ওই দম্পতি। ওই দম্পতির দাবি, ১১ মাসের চুক্তিতে তাঁরা ভাড়া দিয়েছিলেন। সেই চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও তারা ফ্ল্যাট ছাড়ছিলেন না। সুনীল কুমার বিপিসিএলের অবসরপ্রাপ্ত কর্মী। মুম্বই থেকে গ্রেটার নয়ডাতে আসার পরেও তারা ফ্ল্যাটে ঢুকতে পারছিলেন না। এরপর তাঁরা ফ্ল্যাটের সিঁড়িতে থাকার সিদ্ধান্ত নেন।

 দম্পতির দাবি, নিয়ম মেনেই সব করেছিলাম। কিন্তু ওরা উঠতে চাইছিলেন না। পুলিশকেও জানিয়েছিলাম। পুলিশ জানিয়ে দেয় সিভিল ম্যাটার। কোর্টে চলে যান। তারপর শুরু হয় অন্য় লড়াই। পাশে থাকার জন্য মিডিয়াকেও ধন্যবাদ জানিয়েছেন ওই দম্পতি।

বন্ধ করুন