তৃতীয়বারের জন্য জারি মৃত্যু পরোয়ানা (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
তৃতীয়বারের জন্য জারি মৃত্যু পরোয়ানা (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

জারি নয়া মৃত্যু পরোয়ানা, ৩ মার্চ সকাল ৬টায় ফাঁসি নির্ভয়া দণ্ডিতদের

নির্ভয়ার মা আশাদেবী বলেন,যখন দণ্ডিতদের ফাঁসিতে ঝোলানো হবে, তখন আমাদের সত্যিকারের জয় হবে।

তৃতীয়বার। নির্ভয়াকাণ্ডে চার দণ্ডিতের বিরুদ্ধে আবারও মৃত্যু পরোয়ানা জারি করল দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্ট। আগামী ৩ মার্চ সকাল ৬ টায় চারজনকে ফাঁসিতে ঝোলানো হবে।

আরও পড়ুন : দোষীকে আইনি সাহায্য দেওয়ার প্রস্তাব আদালতের, কান্নায় ভেঙে পড়লেন নির্ভয়ার মা

এদিন শুনানির পর রায়দান স্থগিত রেখেছিলেন। পরে বিকেল চারটে নাগাদ এক লাইনের রায়ে অতিরিক্ত দায়রা বিচারক ধর্মেন্দ্র রানা বলেন, 'এখন মৃত্যু পরোয়ানা কার্যকর হবে আগামী ৩ মার্চ সকাল ৬টায়।' তারপরই হাততালিতে ফেটে পড়ে আদালতকক্ষ।

আরও পড়ুন : নির্ভয়া মামলার শুনানি চলাকালীন আদালতকক্ষে সংজ্ঞা হারালেন বিচারপতি

রায়ের পর নির্ভয়ার মা আশাদেবী বলেন, 'বিচারব্যবস্থার উপর আমাদের সম্পূর্ণ আস্থা রয়েছে। যখন দণ্ডিতদের ফাঁসিতে ঝোলানো হবে, তখন আমাদের সত্যিকারের জয় হবে। আমি খুব একটা খুশি নয়। কারণ এই নিয়ে তৃতীয়বার মৃত্যু পরোয়ানা জারি হল। আমরা অত্যন্ত কষ্ট পেয়েছি। তাই শেষপর্যন্ত মৃত্যু পরোয়ানা জারি হওয়ার আমি খুশি। আমার আশা, দণ্ডিতদের ৩ মার্চ ফাঁসিতে ঝোলানো হবে।'

আরও পড়ুন : 'সরকারকে দণ্ডিতদের ফাঁসি দিতে হবে', কেঁদে ফেললেন নির্ভয়ার মা

আইনি সাহায্য নেওয়ার জন্য দিল্লি হাইকোর্টে যে সাতদিনের সময় পেয়েছিল চার দণ্ডিত, তার মেয়াদ গত ১২ ফেব্রুয়ারি শেষ হয়। তারপর নয়া মৃত্যু পরোয়ানা জারির জন্য আবেদন দাখিল করে নির্ভয়ার পরিবার। সেই শুনানিতে এদিন আদালতের কাছে একটি স্টেটাস রিপোর্ট জমা দেয় তিহাড় জেল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন : নির্ভয়া কাণ্ডের সাত বছর- ফাঁসুড়ে হতে চেয়ে বিদেশ থেকে চিঠি তিহাড়ে

বর্তমানে মামলাটির কী অবস্থায় রয়েছে, তা আদালতের কাছে ব্যাখ্যা করেন বিশেষ সরকারি আইনজীবী রাজীব মোহন। তিনি জানান, তিন দণ্ডিতের সামনে আর কোনও আইনি পথ খোলা নেই। আদালতেও কোনও আবেদন পড়ে নেই। দণ্ডিতদের আইনজীবী এ পি সিং আদালতে জানান, গত ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে তিহাড়ে অনশন করছে এক দণ্ডিত বিনয় শর্মা। তা অবশ্য ধোপে টেকেনি। বরং নয়া মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেন বিচারক। যদিও রায়ের পর দণ্ডিতদের আইনজীবী জানান, এখনও আইনি পথ খোলা আছে।

আরও পড়ুন : হিংস্র শ্বাপদের মতো মরবে নির্ভয়ার অত্যাচারীরা, ঘোষণা ফাঁসুড়ের




বন্ধ করুন