বাড়ি > ঘরে বাইরে > সোমবার থেকে চলবে ২০০ মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন, জেনে রাখুন কী কী শর্ত মানতে হবে
 করোনা প্রতিরোধে রেল পরিষেবায় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আনা হয়েছে। 
 করোনা প্রতিরোধে রেল পরিষেবায় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আনা হয়েছে। 

সোমবার থেকে চলবে ২০০ মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন, জেনে রাখুন কী কী শর্ত মানতে হবে

আগামিকাল, ১ জুন থেকে ২০০টি মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন চালু করতে চলেছে ভারতীয় রেল। যাত্রীদের মেনে চলতে হবে বেশ কিছু নতুন নিয়ম।

গত ২৩ মার্চ করোনা সংক্রমণ রোধে দেশব্যাপী লকডাউন জারি হলে বন্ধ হয় রেল পরিষেবা। এর পর লকডাউনের মাঝে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে শুরু হয় শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন পরিষেবা। ১ জুন থেকে চালু হতে চলেছে ২০০টি মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন। ভারতীয় রেলের তরফে রেল পরিষেবায় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আনা হয়েছে। ট্রেনযাত্রীদের জন্য চালু করা হয়েছে বেশ কিছু শর্ত।

1

ভারতীয় রেলের ১৬৭ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম পরিচিত কালো কোট-সাদা প্যান্ট ও কালো টাইয়ের পরিবর্তে মাস্ক, গ্লাভস ও পিপিই পরা অবস্থায় দেখা যাবে ট্রেনের টিকিট পরীক্ষকদের। করোনা সংক্রমণ রোধের উদ্দেশেই এই ব্যবস্থা, জানিয়েছে রেল।

2

এর আগেই লকডাউন পর্বের ৩০ দিনের অগ্রিম টিকিট কাটার সময়সীমা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল। এবার লকডাউনের আগের মতোই, ১২০ দিন আগে থেকে ট্রেনের টিকিট কাটা যাবে। বিশেষ রাজধানী ট্রেনের জন্য প্রথমে সাত দিন, তারপর তিরিশ দিন করা হয়েছিল অগ্রিম বুকিংয়ের সময়কাল। এবার সেটা বাড়িয়ে ৩০ দিন করা হল। রেল জানিয়েছে পার্সেল ও লাগেজও বুক করা যাবে এই ২৩০টি ট্রেনের জন্য। মে ৩১ সকাল আটটা থেকে নয়া নিয়মে টিকিট কাটা যাবে। একই সঙ্গে চলতি বুকিং, তৎকাল পরিষেবা ইত্যাদি ফের চালু করা হচ্ছে। 

3

এ ছাড়া কারেন্ট বুকিং, মধ্যবর্তী স্টেশন থেকে তৎকাল কোটায় আসন সংরক্ষণের সুবিধা আগের মতোই চালু হচ্ছে। 

4

ভারতীয় রেলের তরফে কো-মর্বিডিটি যুক্ত ব্যক্তি, প্রসূতি, ১০ বছরের কম বয়েসি শিশু এবং ৬৫ বছরের বেশি বয়েসি বৃদ্ধদের ট্রেনযাত্রা এড়িয়ে যাওয়ার আবেদন জানিয়েছে রেল। শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনগুলিতে মৃত্যুর হার বাড়ার ফলেই এই সাবধানবাণী শুনিয়েছে রেল।

5

এর আগে রিজার্ভেশন কাউন্টার, ডাকঘর, যাত্রী টিকিট সুবিধা কেন্দ্রের লাইসেন্স প্রাপ্ত সংস্থা এবং আইআরসিটিসি এজেন্ট মারফত ট্রেনের টিকিট বুকিং এ ক্ষানসেলেশন চালু করা হয়েছে।গত ২২ মে থেকে দেশের ১.৭ লাখ কমিউনিটি সেন্টারে শুরু হয়েছে ট্রেনের টিকিট বুকিং প্রক্রিয়া।

6

নতুন ব্যবস্থায় স্টেশন ও ট্রেনের কামরায় প্রবেশ ও প্রস্থানের পথে যাত্রীদের হ্যান্ড স্যানিটাইজার দেওয়া হবে। 

7

নয়া দিল্লি রেল স্টেশনে শুধুমাত্র বৈধ রেল টিকিটধারীদের প্রবেশ করতে দেওয়া হবে।

প্রত্যেক যাত্রীর মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছে রেল।

8

যে সব যাত্রীর মধ্যে করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নেই, শুধুমাত্র তাঁদেরই রেলভ্রমণ করার অনুমতি দেওয়া হবে।

9

ট্রেনযাত্রার সব সময় সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে চলতে হবে। 

10

আরোগ্য সেতু অ্যাপ ব্যবহার আবশ্যিক ঘোষণা করেছে ভারতীয় রেল। 

বন্ধ করুন