বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Modi on Adhir: ‘মনে হয় কলকাতা থেকে কোনও ফোন এসেছিল’, অধীরকে ঝাঁঝালো খোঁচায় ‘গুড়কে গোবর’ নিয়ে কোন মন্তব্য মোদীর?

Modi on Adhir: ‘মনে হয় কলকাতা থেকে কোনও ফোন এসেছিল’, অধীরকে ঝাঁঝালো খোঁচায় ‘গুড়কে গোবর’ নিয়ে কোন মন্তব্য মোদীর?

নরেন্দ্র মোদী. (ANI Photo/Sansad TV) (ANI)

অধীর চৌধুরীর বক্তব্যের সিংহভাগই এদিন ছিল মোদী সরকারের টার্গেট করে। এদিকে, তারপর প্রধানমন্ত্রী মোদী বক্তব্য রাখতে উঠে অধীর চৌধুরীকে ঝাঁঝালো তোপ দিতে ছাড়েননি।

অনাস্থা প্রস্তাবের আলোচনা পর্বে এদিন হাইভোল্টেজ বক্তৃতায় সংসদে একের পর এক খোঁচা বিরোধী পাল্টা ফিরিয়ে দিতে থাকেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। এদিন সকালে , সংসদের অধিবেশনে অগ্নিগর্ভ ভাষণে ঝড় তুলেছিলেন কংগ্রেসের অধীর চৌধুরী। তাঁর বক্তব্যের সিংহভাগই এদিন ছিল মোদী সরকারের টার্গেট করে। এদিকে, তারপর প্রধানমন্ত্রী মোদী বক্তব্য রাখতে উঠে অধীর চৌধুরীকে ঝাঁঝালো তোপ দিতে ছাড়েননি। মোদী বলেন, ‘গুড়কে গোবর ক্যায়সে করানা হ্যায় উসমে ইয়ে মাহির হ্যায়’ (গুড় দিয়ে কীভাবে গোবর বানাতে হয়, তাতে ওঁর দাপট আছে।)

এদিন অনাস্থা প্রস্তাবের আলোচনা পর্বে অধীর চৌধুরী বলেছিলেন,'অনাস্থা প্রস্তাবের জোর দেখুন প্রধানমন্ত্রীকে টেনে আনলাম।' সকাল থেকেই সূত্রের খবর ছিল যে, সংসদে প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত হবেন অধীর চৌধুরীর ভাষণে। আর ঠিক বাস্তবেও সেটাই হল। অধীর চৌধুরী ভাষণ শুরু করতেই মোদী প্রবেশ করলেন লোকসভা কক্ষে। ততক্ষণে বিরোধীরে ‘ইন্ডিয়া ইন্ডিয়া’ স্লোগানে কক্ষ মাত করেছেন। এদিকে, পাল্টা মোদী নিজের ভাষণে অধীরকে টার্গেট করে বলেন,  ২০০৩ সালে অটলবিহারী বাজপেয়ীর সরকারের প্রতি অনাস্থা প্রস্তাব এনেছিল কংগ্রেস। আর সেবার বলেছিলেন বিরোধী দলনেত্রী সোনিয়া গান্ধী। এরপর মোদী বলেন,' আর এবার সবথেকে বড় বিরোধী দলের লোকসভার নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরীর নাম বলার সূচিতে ছিলই না।’ এরপরই মোদী বলেন,' কেন অধীরবাবুকে কোণঠাসা করা হল? মনে হয় কলকাতা থেকে কোনও ফোন এসেছিল। আমি অধীরবাবুর প্রতি পূর্ণ সমবেদনা জানাচ্ছি।' খোঁচার সুরে মোদী বলেন,'এটা অমিত শাহের উদারতা যে তিনি অধীরবাবুকে সময় দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।'

(Jadavpur ragging incident:'এগুলো ওই তিন রাত আমার সাথে চলছে,আমি ভীত', যাদবপুরের হস্টেলে ‘কিছু দাদা’দের নিয়ে সরব পড়ুয়া)

মোদী এদিন বলেন, ‘আগের উদাহরণগুলি আপনি দেখুন। ১৯৯৯ সালে বাজপেয়ী সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এসেছিল, সেই সময় শরদ পাওয়ারজি নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন, পরে ২০০৩ সালে অটলজির সরকার ছিল সেবার সোনিয়াজি বিপক্ষের নেতা ছিলেন তিনি লিড নিয়েছিলেন। ২০১৮ সালে খাড়গেজি ছিলেন বিপক্ষের নেতা তিনি স্পষ্ট করে বিষয়কে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু এবার অধীর বাবুর কী হাল হল? ওঁর পার্টি ওঁকে বলতেই দিলেন না।’ এরপর মোদী বলেন, অমিত শাহ ও স্পিকারের সৌজন্যে অধীরবাবুকে বলতে দেওয়া হয়েছিল। এরই সঙ্গে মশকরার সুরে মোদী বলেন,'কিন্তু গুড়কে গোবর কীভাবে করতে হয়, তাতে ইনি তো সিদ্ধহস্ত।'  এরপরই মোদী প্রশ্ন তোলেন কেন অধীরবাবুকে এভাবে কোণঠাসা করা হল। তখনই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘হয়তো কলকাতা থেকে কোনও ফোন এসেছিল!’

 

 

ঘরে বাইরে খবর
বন্ধ করুন

Latest News

বরোদার বিরুদ্ধে রঞ্জির কোয়ার্টারে মূল্যবান লিড পেল ৪১ বারের চ্যাম্পিয়ন মুম্বই সিরিজ জয় মূল লক্ষ্য, অল্পের জন্য শতরান হাতছাড়া করেও আফসোস নেই ধ্রুব জুরেলের আজও কান পাতলে শোনা যায় আর্তনাদ! সূর্য ডোবার পরে ভয়ের চোটে এখানে যান না কেউ ছেলেকে ‘লুকিয়ে’ই রাখেন নুসরত, প্রথমবার সামনে আনলেন ঈশানের এই বিশেষ কীর্তি রাতে হয়েছিলেন আটক, সকাল হতেই গ্রেফতার বেড়মজুরের তৃণমূল নেতা অজিত মাইতি IND vs ENG 4th Test LIVE: ছক্কা হাঁকিয়ে ভারতকে ৫০ পার করালেন রোহিত শর্মা ভোডাফোন-আইডিয়ার ৩৩% শেয়ার কি ছেড়ে দেবে সরকার? সামনে এল সাফ বার্তা ঘরের মাঠে সব থেকে বেশি টেস্ট উইকেট নেওয়া ৬ স্পিনার, কুম্বলেকে টপকে দুইয়ে উঠলেন অশ্বিন খাবারে খরচ কমছে ভারতীয়দের, ব্যয় বাড়ছে পরিষেবা ও অন্যান্য সামগ্রী কিনতে: রিপোর্ট জোড়া জয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স, দেখে নিন WPL-এর পয়েন্ট তালিকা

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.