বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সহপাঠী ছাত্রীদের নগ্ন ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে গণধর্ষণের ফন্দি স্কুলপড়ুয়াদের
বছর ১৭-১৮ এর দুই কিশোর সহপাঠীকে ধর্ষণের মতলব আঁটে।
বছর ১৭-১৮ এর দুই কিশোর সহপাঠীকে ধর্ষণের মতলব আঁটে।

সহপাঠী ছাত্রীদের নগ্ন ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে গণধর্ষণের ফন্দি স্কুলপড়ুয়াদের

  • গ্রুপের সদস্যরা নিজেদের মধ্যে প্রায়ই সহপাঠী ছাত্রীদের সম্পর্কে যৌন বিকৃতিমূলক আলোচনায় মেতে থাকে।

স্কুলপড়ুয়াদের চ্যাট গ্রুপে সমবয়েসি মেয়েদের গণধর্ষণের পরিকল্পনা ফাঁস হল দিল্লিতে। সম্প্রতি এই তথ্য ফাঁস করে টুইটারে পোস্ট করেছে ওই স্কুলেরই এক ছাত্রী।

কিছু দিন আগে Bois Locker Room নামে একটি ইনস্টাগ্রাম চ্যাট গ্রুপ নাবালিকাদের নগ্ন ও বিকৃত ছবি শেয়ার করে তাদের গণধর্ষণের কৌশল ছকতে দেখা গিয়েছে দক্ষিণ দিল্লির বাসিন্দা একশোর বেশি স্কুলপড়ুয়াকে। 

কঠোর ভাবে ছেলেদের জন্য তৈরি ওই গ্রুপের সদস্যরা নিজেদের মধ্যে প্রায়ই সহপাঠী ছাত্রীদের সম্পর্কে যৌন বিকৃতিমূলক আলোচনায় মেতে থাকে। তাদের মধ্যে মাঝে মাঝেই সহপাঠীদের ধর্ষণ করার নানান পরিকল্পনা চলে বলে অভিযোগ। 

রবিবার এই গ্রুপের কিছু পোস্টের স্ক্রিনশট টুইটারে শেয়ার করে নিজের আতঙ্কের কথা প্রকাশ করে এক ছাত্রী। বিষয়টি সে বাড়িতে বললেও অভিভাবকরা আমল দেননি বলে জানিয়েছে ওই ছাত্রী। 

স্ক্রিনশটে দেখা গিয়েছে, বছর ১৭-১৮ এর দুই কিশোর সহপাঠীনিকে ধর্ষণের মতলব আঁটছে। এই নিয়ে রসালো মন্তব্যের সঙ্গে কিশোরীর নগ্ন ও বিকৃত ছবিও তারা শেয়ার করছে বলে দেখা গিয়েছে। 

এই বিষয়ে দক্ষিণ দিল্লির পুলিশ জানিয়েছে, যত ক্ষণ পর্যন্ত না অভিভাবকরা লিখিত অভিযোগ জানাচ্ছেন, তত ক্ষণ এই বিষয়ে পদক্ষেপ করা সম্ভব নয়। এখনও পর্যন্ত কোনও অভিযোগ নথিভুক্ত হয়নি বলেও জানিয়েছে পুলিশ। 

ভারতীয় আইন অনুযায়ী, ছবি বিকৃতি এবং মানুষের গোপনাঙ্গের ছবি শেয়ার করা তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৬৬ই ধারা এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪ সি ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ। 

ইতিমধ্যে আলোচ্য চ্যাট গ্রুপটি ইনস্টাগ্রাম থেকে মুছে দেওয়া হয়েছে। তার বদলে Bois Locker Room 2.0 নামে অন্য এক গ্রুপ, যেখানে সদস্যদের ভুয়ো প্রোফাইল ব্যবহার করে রেজিস্ট্রেশন করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

বন্ধ করুন