বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভারতীয় জাল নোট পাচারের আন্তর্জাতিক চক্রের হদিশ বাংলাদেশে, সন্দেহ পাক যোগের
ভারতীয় জাল নোট পাচারের আন্তর্জাতিক চক্রের হদিশ বাংলাদেশে, পাক যোগের সন্দেহ: ছবি (সৌজন্য রয়টার্স) (REUTERS)
ভারতীয় জাল নোট পাচারের আন্তর্জাতিক চক্রের হদিশ বাংলাদেশে, পাক যোগের সন্দেহ: ছবি (সৌজন্য রয়টার্স) (REUTERS)

ভারতীয় জাল নোট পাচারের আন্তর্জাতিক চক্রের হদিশ বাংলাদেশে, সন্দেহ পাক যোগের

  • ঘটনার তদন্তে নেমে ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে বাংলাদেশ পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে দু'জন পাকিস্তানি। ধৃতদের কাছ থেকে 8৬ লক্ষ টাকার জাল ভারতীয় মুদ্রা উদ্ধার হয়েছে

উন্নত মানের ভারতীয় জাল নোট পাচারের কারবার চলছে বাংলাদেশে। আর এই জালিয়াতি চক্রের কলকাঠি নড়ছে পাকিস্তান থেকে! অভিযোগ এমনটাই। এমন একটি আন্তর্জাতিক জাল নোট চক্রের হদিশ পেল ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি (এনআইএ)। প্রথমে এই চক্রের হদিশ পেয়েছেন বাংলাদেশের গোয়েন্দারা।

তারপর এই চক্রের হদিশ পায় এনআইএ। এই নিয়ে একটি মামলাও নথিভূক্ত করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। খুব শীঘ্রই তাঁরা বাংলাদেশে গিয়ে এই চক্রের সন্ধান চালাবে। ঢাকার পল্টন মন্ডল থানায় এই ঘটনাটি নথিভুক্ত হয়। সেখান থেকে ইতিমধ্যেই মামলাটির দায়িত্ব নিয়েছে এনআইএ।

ঘটনার তদন্তে নেমে ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে বাংলাদেশ পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে দু'জন পাকিস্তানি। ধৃতদের কাছ থেকে 8৬ লক্ষ টাকার জাল ভারতীয় মুদ্রা উদ্ধার হয়েছে। ঢাকায় এই জাল নোট কারবার পাকিস্তান থেকে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে বলে সন্দেহ করছেন গোয়েন্দারা।

এনআইএর এক বরিষ্ঠ আধিকারিক জানিয়েছেন, আমরা লক্ষ্য করেছি, বাংলাদেশে একটি নতুন মডিউল সক্রিয় হয়েছে। ৫০০ ও ২০০০ টাকার জাল ভারতীয় মুদ্রা পাচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে এনআইএর আইন সংশোধনের পর দেশের বাইরেও গিয়ে জঙ্গিদের কার্যকলাপের বিরুদ্ধে তদন্ত চালানোর ক্ষমতা পায়। সেক্ষেত্রে অন্যান্য দেশের তদন্তকারীদের মতোই বিদেশে গিয়ে তদন্ত করার ক্ষমতা পেয়েছে এনআইএ।

 

বন্ধ করুন