বাংলা নিউজ > ময়দান > রুটের ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনার মাঝেই মুখ খুললেন অধিনায়ক হওয়ার অন্যতম দাবিদার স্টোকস
চতুর্থ অ্যাসেজ টেস্টের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত বেন স্টোকস ও জো রুট (ডান দিকে)। ছবি- আইসিসি।

রুটের ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনার মাঝেই মুখ খুললেন অধিনায়ক হওয়ার অন্যতম দাবিদার স্টোকস

  • চলতি অ্যাসেজ সিরিজে পাঁচ টেস্টের মধ্যে প্রথম তিনটি ম্যাচেই অস্ট্রেলিয়ার হাতে দুরমুশ হয়েছে ইংল্যান্ড।

২০২১ সালটা ব্যাটার জো রুটের জন্য অসাধারণ কাটলেও, অধিনায়ক জো রুটের জন্য একেবারেই সুখকর হয়নি। ভারতের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠ এবং ভারতের মাটিতে হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর, চলতি অ্যাসেজ সিরিজেও প্রথম তিন টেস্টে দুরমুশ হয়েছে তাঁর নেতৃতবাধীন ইংল্যান্ড। মাইকেল অ্যাথারটন থেকে রিকি পন্টিং সকলেই তাঁর অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

তবে রুটের পরিবর্তে অ্যাসেজ শেষে ইংল্য়ান্ডের টেস্ট অধিনায়ক হওয়ার জন্য বেন স্টোকসেই সেরা দাবিদার মানা হলেও তিনি অধিনায়ক হতেই রাজি নন। BBC-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বেন স্টোকস জানান, ‘আমার অধিনায়ক হওয়ার মনবাসনা নেই। অধিনায়কত্ব মানে শুধু ফিল্ডিং সেট করা, দল বাছা বা মাঠে সিদ্ধান্ত নেওয়া নয়। অধিনায়ক এমন কারুর হওয়া উচিত যার জন্য মাঠে নেমে জান লড়িয়ে দেওয়ার জন্যও বাকিরা প্রস্তুত থাকবে। জো রুটের এমন একজন অধিনায়ক যার অধীনে আমি খেলতে আগ্রহী।’

পাঁচ বছর ধরে টেস্টে অধিনায়কত্ব করার পাশপাশি তিনটি অ্যাসেজ সিরিজেও অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন রুট। তিন অ্যাসেজ সিরিজের মধ্যে এটি অজিভূমে তাঁর দ্বিতীয় সিরিজ এবং দুই সিরিজেই ইংল্যান্ডকে দুরমুশ করেছে অস্ট্রেলিয়া। তবে দলের খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য রুটকে কোনোভাবেই দোষারোপ করতে রাজি নন ইংল্যান্ডের সহ-অধিনায়ক এবং পরবর্তী অধিনায়ক হওয়ার সবচেয়ে বড় দাবিদার বেন স্টোকস। তাঁর মতে রুট নিজেও এখনই অধিনায়ক পদ ছাড়তে রাজি নন।

‘রুট এমনটা (অধিনায়কত্ব ছাড়ার বিষয়ে) চায় বলে তো মনে হয় না। ও এই দলকে অনেক এগিয়ে নিয়ে এসেছে এবং দলের হয়ে দারুণ পারফর্ম করেছে। হ্যাঁ, নিঃসন্দেহে এই সিরিজটা আমাদের জন্য ভাল যাচ্ছে না। তবে সেটা অধিনায়কের দোষ নয়, আমরা দলগতভাবে ব্যর্থ হয়েছি। যদিও দিনের শেষে ও কী করবে, না করবে সেটা সম্পূর্ণ জোয়ের ওপরই নির্ভর করে।’ দাবি স্টোকসের। প্রসঙ্গত, ৫ জানুয়ারি থেকে সিডনিতে চতুর্থ অ্যাসেজ টেস্ট খেলতে নামছে ইংল্যান্ড।

বন্ধ করুন