বাংলা নিউজ > ময়দান > টানা ব্যর্থ, BCCI-এর বার্ষিক চুক্তির গ্রেড-এ তালিকা থেকে কি বেরিয়ে যাবেন রাহানে-পূজারা?
চেতেশ্বর পূজারা এবং অজিঙ্কা রাহানে।
চেতেশ্বর পূজারা এবং অজিঙ্কা রাহানে।

টানা ব্যর্থ, BCCI-এর বার্ষিক চুক্তির গ্রেড-এ তালিকা থেকে কি বেরিয়ে যাবেন রাহানে-পূজারা?

  • বর্তমানে দুই তারকা ক্রিকেটারই বিসিসিআই-এর বার্ষিক চুক্তির গ্রেড-এ তালিকাভুক্ত। পূজারা-রাহানের সঙ্গে বছরে পাঁচ কোটি টাকার চুক্তি রয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের। কিন্তু গত বছর ব্যাট হাতে তাঁদের যা পারফরম্যান্স, তাতে এ গ্রেডে টিকে থাকা নিয়ে জল্পনা রয়েছে।

দীর্ঘ দিন ধরে ফর্মে নেই চেতেশ্বর পূজারা এবং অজিঙ্কা রাহানে। তাদের দলে রাখা নিয়েই প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ২০২২ ক্রিকেটারদের সঙ্গে  বিসিসিআই-এর বার্ষিক চুক্তির গ্রেড-এ তালিকায় কি আদৌ নিজেদের জায়গা ধরে রাখতে পারবেন রাহানে এবং পূজারা? উঠে গিয়েছে প্রশ্ন। এ দিকে জানা গিয়েছে, ইশান্ত শর্মা ও হার্দিক পাণ্ডিয়াকে এ থেকে বি ক্যাটাগরিতে নামিয়ে দেওয়া হতে পারে।

বর্তমানে দুই তারকা ক্রিকেটারই বিসিসিআই-এর বার্ষিক চুক্তির গ্রেড-এ তালিকাভুক্ত। পূজারা-রাহানের সঙ্গে বছরে পাঁচ কোটি টাকার চুক্তি রয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের। কিন্তু গত বছর ব্যাট হাতে তাঁদের যা পারফরম্যান্স, তাতে এ গ্রেডে টিকে থাকা নিয়ে জল্পনা রয়েছে। বোর্ডের একাংশ কর্তার দাবি, সম্ভত পূজারা এবং রাহানে এ গ্রড থেকে নেমে যেতে পারেন। বোর্ডের তিন জন কর্তা, পাঁচ নির্বাচক এবং টিম ইন্ডিয়ার হেড কোচ মিলে ঠিক করেন, কত জন ক্রিকেটারের সঙ্গে বার্যিক চুক্তি করা হবে, বা কে কোন গ্রেডে থাকবেন।

এ দিকে এ থেকে বি ক্যাটাগরিতে নেমে যেতে পারেন ইশান্ত এবং হার্দিক। ইশান্ত টেস্ট ছাড়া অন্য ফরম্যাটে দেশের হয়ে সুযোগ পাচ্ছেন না। তার ওপর চোটের জেরে গত এক বছরে অনিয়মিত হয়ে পড়েছেন তিনি। পাশাপাশি হার্দিক পান্ডিয়া আবার চোটের জন্য দল থেকেই ছিটকে গিয়েছেন। নিজের ফিটনেস প্রমাণ করতে না পারা পর্যন্ত তাঁকে দলে রাখা হবে না। যে কারণে বার্ষিক চুক্তির অঙ্ক কমতে পারে হার্দিক-ইশান্তের। অন্য দিকে আবার টেস্টে ক্রিকেটে নিজেদের প্রমাণ করার জন্য ময়াঙ্ক আগরওয়াল ও শার্দুল ঠাকুরের বি থেকে এ ক্যাটাগরিতে উঠে আসার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

বোর্ড সূত্রের খবর অবশ্য, বোর্ডের বার্ষিক চুক্তির তালিকায় খুব বেশি পরিবর্তন হবে না। দু-এক জন নতুন মুখ দেখে যেতে পারে। যেমন বেঙ্কটেশ আইয়ার, হর্ষাল প্যাটেলরা বোর্ডের চুক্তিতে জায়গা করে নিতে পারেন। আর কিছু ক্রিকেটারের গ্রেড পরিবর্তন হতে পারে।

বর্তমানে বোর্ডের চুক্তির ‘এ প্লাস’ ক্যাটাগরিতে রয়েছেন তিন ক্রিকেটার। রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি এবং জসপ্রীত বুমরা। তিন জনই তিন ফরম্যাটে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন। এই তালিকাতেই এ বার উঠে আসতে পারেন কেএল রাহুল এবং ঋভ পন্ত। তারা এর আগে এ ক্যাটাগরিতে ছিলেন। কিন্তু গত এক বছরে রাহুল এবং ঋষভ তিন ফরম্যাটেই নিজেদের অপরিহার্য করে তুলেছেন।

বোর্ডের চুক্তি অনুযায়ী, এ প্লাস ক্যাটগরিতে থাকা ক্রিকেটারদের সঙ্গে বার্ষিক ৭ কোটি, এ ক্যাটাগরির ক্রিকেটারদের সঙ্গে বার্ষিক ৫ কোটি, বি ক্যাটাগরির ক্রিকেটারদের সঙ্গে বার্ষিক ৩ কোটি এবং সি ক্যাটাগরিতে থাকা ক্রিকেটারদের সঙ্গে বার্ষিক ১ কোটি টাকার চুক্তি করা হয়।

বন্ধ করুন