বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > মিটেও মিটছে না বিতর্ক! পাঁচ বছরের চুক্তি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের কর্তারা
মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ও মনোজ তিওয়ারি (ছবি: পিটিআই) (PTI)
মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ও মনোজ তিওয়ারি (ছবি: পিটিআই) (PTI)

মিটেও মিটছে না বিতর্ক! পাঁচ বছরের চুক্তি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের কর্তারা

মুখ্যমন্ত্রীর কথাকে হাতিয়ার করে ইস্টবেঙ্গলে নতুন পরিকল্পনা! পাঁচ বছরের চুক্তি মানতে চায় কর্তারা, লগ্নিকারী সংস্থার অন্য যুক্তি। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় বসতে চেয়ে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের কর্তাদের আবেদন।

মিটেও সমস্যা মিটলনা। ধোঁয়াশা রয়েই গেল। ক্লাব কর্তা ও লগ্নিকারী সংস্থার মধ্যে চুক্তি জটিলতায় যেন আরও জট পাকিয়ে যাচ্ছে। মঙ্গলবারই মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গলও আইএসএল খেলবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, ‘চিন্তা নেই। সমস্যা মিটে যাবে। আইএসএলে খেলবে ইস্টবেঙ্গলও।’ এরপরে তিনি ক্লাব কর্তাদের উদ্দেশ্য করে বলেছিলেন একটু তোমরা ছাড়ও তাহলেই সব মিটে যাবে। এর পরেই মুখ্যমন্ত্রী মঞ্চ থেকে বলেন ‘পাঁচ বছরের জন্য যে কেউ গ্যারান্টি নেবে, এটাও তো মুখের কথা নয়। এক-একটা ৫০ কোটি টাকা করে লাগে। সুতরাং তাদের অনেক করে বলেকয়ে রাজি করানো হয়েছে।’ এরপরেই মঙ্গলবার কর্মসমিতির বৈঠক ডাকা হয়,  এরপর ক্লাবের পক্ষ থেকে একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়।

ইস্টবেঙ্গল ক্লবারে প্রেস বিজ্ঞপ্তি
ইস্টবেঙ্গল ক্লবারে প্রেস বিজ্ঞপ্তি

মিটেও সমস্যা মিটলনা। ধোঁয়াশা রয়েই গেল। ক্লাব কর্তা ও লগ্নিকারী সংস্থার মধ্যে চুক্তি জটিলতায় যেন আরও জট পাকিয়ে যাচ্ছে। মঙ্গলবারই মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গলও আইএসএল খেলবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, ‘চিন্তা নেই। সমস্যা মিটে যাবে। আইএসএলে খেলবে ইস্টবেঙ্গলও।’ এরপরে তিনি ক্লাব কর্তাদের উদ্দেশ্য করে বলেছিলেন একটু তোমরা ছাড়ও তাহলেই সব মিটে যাবে। এর পরেই মুখ্যমন্ত্রী মঞ্চ থেকে বলেন ‘পাঁচ বছরের জন্য যে কেউ গ্যারান্টি নেবে, এটাও তো মুখের কথা নয়। এক-একটা ৫০ কোটি টাকা করে লাগে। সুতরাং তাদের অনেক করে বলেকয়ে রাজি করানো হয়েছে।’ এরপরেই মঙ্গলবার কর্মসমিতির বৈঠক ডাকা হয়,  এরপর ক্লাবের পক্ষ থেকে একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়।|#+|

মুখ্যমন্ত্রীর এই কথাকে হাতিয়ার করে চুক্তির এক্সিট ক্লজে পাঁচ বছরের বিষয় সংযোজন করতে চাইছেন ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের কর্তারা। সোমবার মুখ্যমন্ত্রীর আশ্বাসবাণী পেয়েই মঙ্গলবার কর্মসমিতির বৈঠক ডাকা হয়েছিল ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে। সেখানেই চুক্তিপত্রের বেশ কিছু বিষয় নিয়ে কর্তারা রাজি হলেও কিছু বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারছেনা ক্লাব। এদিকে শ্রী সিমেন্টের সঙ্গে পাঁচ বছরের চুক্তি করতে চাইছে ইস্টবেঙ্গল। তারপরেই পর্যালোচনা করে একসঙ্গে চলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। যদিও এই সিদ্ধান্ত মানতে পারেনি ক্লাবের লগ্নিকারী সংস্থা শ্রী সিমেন্ট।

যদিও লগ্নিকারী শ্রী সিমেন্টের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, কোনও চুক্তিতেই সময়সীমা উল্লেখ থাকে না। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের অপব্যাখ্যা করা হচ্ছে। অন্যদিকে ক্লাবের এক কর্তা মনে করেন ক্লাবের ঐতিহ্য, পরম্পরা ঠিকমত রক্ষা করা হচ্ছে কিনা, সেটা দেখাও তো গুরুত্বপূর্ণ। ক্লাবের পক্ষে সম্মানহানিকর যাতে কিছুই না হয়, সেই জন্যই পাঁচ বছরের পর পর্যালোচনা করার ভাবনা। সমস্ত বিষয় আলোচনার জন্যই মুখ্যমন্ত্রীর সময় চেয়েছেন ক্লাব কর্তারা। এবার সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় বসতে চাইছেন লাল হলুদ কর্তারা।

বন্ধ করুন