বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > লাল-হলুদে না খেলেও পাওনা টাকা দাবি করলেন ওমিদ সিং
ওমিদ সিং।
ওমিদ সিং।

লাল-হলুদে না খেলেও পাওনা টাকা দাবি করলেন ওমিদ সিং

  • ওমিদ বড় অঙ্কের টাকা ইস্টবেঙ্গলের থেকে পাবেন বলে জানিয়েছেন। সেই পরিমাণটা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ১ কোটি ৩০ লক্ষ টাকা। ইস্টবেঙ্গলের হয়ে ওমিদ কিন্তু কখনও খেলেননি। তাও তিনি চুক্তিপত্র দেখিয়েছেন।

একেই বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে ঝামেলা মিটছে না। যার জেরে এসসি ইস্টবেঙ্গলের কলকাতা লিগ থেকে আইএসএল- খেলা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে! গোদের উপর বিষফোড়া আবার জনি অ্যাকোস্টা, হাইমে স্যান্টোস কোলাডো, কার্লোস নোডার, পিন্টু মাহাতো, রক্ষিত ডাগার, আভাস থাপা সহ কোচ, ফুটবলাররা সবাই পাওনা বকেয়া মেটানোর জন্য চিঠি পাঠিয়েছেন ইস্টবেঙ্গলকে। দ্বারস্থ হয়েছেন ফিফার। সেই তালিকায় এ বার যোগ হল ভারতীয় বংশোদ্ভূত ইরানের ফুটবলার ওমিদ সিং-এর নামও।

ওমিদ বড় অঙ্কের টাকা ইস্টবেঙ্গলের থেকে পাবেন বলে জানিয়েছেন। সেই পরিমাণটা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ১ কোটি ৩০ লক্ষ টাকা। মজার বিষয়, ইস্টবেঙ্গলের হয়ে ওমিদ কিন্তু কখনও খেলেননি। তাও তিনি চুক্তিপত্র দেখিয়েছেন। গত বছর কোয়েস সরে যাওয়ার পর এবং শ্রী সিমেন্ট বিনিয়োগকারী হিসেবে যোগ দেওয়ার আগে যে মাঝের সময়টা রয়েছে, তখন নতুন বিদেশি হিসেবে ওমিদের নাম শোনা গিয়েছিল। কিন্তু তিনি আর পরে এসসি ইস্টবেঙ্গলে যোগ দেননি। তবু চুক্তিপত্র পাঠিয়ে পাওনা টাকা দাবি করেছেন ওমিদ। গত বছর কোয়েস বিদায় এবং শ্রী সিমেন্টের আগমনের আগে যে মাঝের কয়েকমাস আইএসএল খেলা নিয়ে দোলাচলে ছিলেন ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা, সেই সময়ই ২০২০-২১ মরশুমের জন্য নতুন বিদেশী হিসেবে ওমিদ সিং-এর নাম বাজারে এসেছিলো। যদিও সেই খবর দিনের আলো দেখেনি। কোনোদিনই ইস্টবেঙ্গলের জার্সি গায়ে চাপাননি ওমিদ। ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে যে চুক্তিপত্রের ছবি প্রকাশ্যে এসেছে, তাতে দেখা যাচ্ছে এই চুক্তিপত্রে শুধু ওমিদের সই রয়েছে, ইস্টবেঙ্গলের তরফ থেকে সইয়ের জায়গাটি ফাঁকাই রয়েছে।

ওমাদের চুক্তি।
ওমাদের চুক্তি।

এই চুক্তি বিতর্কের সমাধান কী করে হবে, তা ফিফাই জানে। তবে এই চুক্তি যেহেতু শ্রীসিমেন্ট আসার আগে এবং কোয়েস যাওয়ার পরে, তাই এর পুরো দায়ই বর্তাবে ইস্টবেঙ্গলের ঘাড়ে। দেখার, ইস্টবেঙ্গল এই বিষয়টি কী করে সামলায়!

বন্ধ করুন