বাংলা নিউজ > ময়দান > ভাগ্যের সহায়তা পেলে শোয়েব আখতারের রেকর্ড ভেঙে দেব- আত্মবিশ্বাসী উমরান

ভাগ্যের সহায়তা পেলে শোয়েব আখতারের রেকর্ড ভেঙে দেব- আত্মবিশ্বাসী উমরান

উমরান মালিক।

বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসে দ্রুততম বলের রেকর্ডের মালিক এখনও পাকিস্তানের প্রাক্তন জোরে বোলার শোয়েব আখতারই। ২০০৩ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে শোয়েবের একটি বলের গতি ছিল ঘণ্টায় ১৬১.৩ কিলোমিটার। যা এখনও পর্যন্ত দ্রুততম বল হিসাবে চিহ্নিত। আর শোয়েবের এই রেকর্ড ভাঙাই লক্ষ্য উমরানের।

টিম ইন্ডিয়ার তারকা পেসার উমরান মালিক ২০২২ আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের দুরন্ত পারফরম্যান্স করে সকলের নজর কাড়েন। তিনি ভারতের নতুন স্পিডস্টার। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে ১৪ ম্যাচে ২২টি উইকেট নিয়ে মরশুমে শেষ করেছিলেন তিনি। আইপিএলে চিত্তাকর্ষক পারফরম্যান্সের পরে জুনে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য তিনি প্রথম বার ভারতীয় দলে ডাক পেয়েছিলেন। উমরান এর পর থেকে পাঁচটি ওয়ানডে এবং খেলার সংক্ষিপ্ততম ফর্ম্যাটে তিনটি ম্যাচ খেলেছেন।

তবে নতুন বছরে নতুন লক্ষ্য স্থির করেছেন উমরান মালিক। ভারতের তরুণ জোরে বোলার বলের গতির সঙ্গে সমঝোতা করতে চান না। কারণ, বলের গতিই তাঁকে পরিচিতি দিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বে। তাই বলের গতি বজায় রেখেই বলের ধার বাড়াতে চান উমরান।

আরও পড়ুন: ICU থেকে বেরোলেন পন্ত, তবে এখনও ধোঁয়াশা হাঁটু, গোড়ালির চোট নিয়ে

বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসে দ্রুততম বলের রেকর্ডের মালিক এখনও পাকিস্তানের প্রাক্তন জোরে বোলার শোয়েব আখতারই। ২০০৩ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে শোয়েবের একটি বলের গতি ছিল ঘণ্টায় ১৬১.৩ কিলোমিটার। যা এখনও পর্যন্ত দ্রুততম বল হিসাবে চিহ্নিত। আর শোয়েবের এই রেকর্ড ভাঙাই লক্ষ্য উমরানের। জম্মু-কাশ্মীরের জোরে বোলারও শোয়েবের দ্রুততম বলের রেকর্ড ভাঙতে পারবেন বলে দাবি করেছেন।

একটি সাক্ষাৎকারে ২৪ বছরের জোরে বোলার বলেছেন, ‘এই মুহূর্তে আমি শুধু দেশের হয়ে ভালো পারফর্ম করার কথা ভাবছি। যদি ভালো বল করতে পারি, যদি ভাগ্যের সহায়তা পাই, তা হলে শোয়েব আখতারের রেকর্ড ভেঙে দেব। তবে এই রেকর্ড নিয়ে আমি একদমই চিন্তিত নই। আমার লক্ষ্য একটাই। শুধু দেশের হয়ে ভালো খেলতে চাই।’

আরও পড়ুন: সচিনের ODI শতরানের রেকর্ড এ বছর ভাঙবেন কোহলি? সম্ভাবনা থাকলেও সহজ হবে না- বাঙ্গার

৩ জানুয়ারি থেকে শুরু হতে চলা উমরান শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডে সিরিজের দলে রয়েছেন। তাঁর দুর্দান্ত গতির কারণে উমরানকে ক্রমাগত পাকিস্তানের প্রাক্তন দ্রুততম বোলার শোয়েব আখতারের সঙ্গে তুলনা করা হচ্ছে। উমরান বলেছেন, ‘ম্যাচের সময় কত জোরে বল করছি, সেটা বোঝা যায় না। খেলার পর সাজঘরে ফিরে আসার পর জানতে পারি, কত জোরে বল করেছি। মাঠে আমার লক্ষ্য থাকে, সঠিক জায়গায় বল ফেলে উইকেট তুলে নেওয়া।’

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে সুযোগ পেলে নিজের সেরাটা দিতে মরিয়া হয়ে রয়েছেন উমরান। তবে লঙ্কার বিরুদ্ধে ওডিআই টিমে ভারতীয় দলে মহম্মদ শামি, মহম্মদ সিরাজ, আর্শদীপ সিং-এর মতো বোলাররা রয়েছেন। থাকবেন সহ-অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়াও। তবে টি-টোয়েন্টি সিরিজে তাঁর খেলার একটা সম্ভাবনা রয়েছে। তবে টি-টোয়েন্টি দলে উমরান ছাড়া জোরে বোলার হিসেবে রয়েছেন আর্শদীপ, হর্ষাল প্যাটেল, শিবম মাভি, মুকেশ কুমার।

বন্ধ করুন