বাংলা নিউজ > ময়দান > সচিন, ভিভদের দেখেছি, ওর মতো ব্যাটার শতাব্দীতে একবারই আসে- কার দক্ষতায় মুগ্ধ কপিল?

সচিন, ভিভদের দেখেছি, ওর মতো ব্যাটার শতাব্দীতে একবারই আসে- কার দক্ষতায় মুগ্ধ কপিল?

সূর্যকুমার যাদব এবং কপিল দেব।

সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে মাত্র ৫১ বলে ১১২ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন সূর্যকুমার। তাঁর রানের সৌজন্যেই টিম ইন্ডিয়া পাঁচ উইকেটে ২২৮ রানের পাহাড় সমান স্কোর করে।

রাজকোটে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে সূর্যকুমার যাদবের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে মুগ্ধ ১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব। তিনি সূর্যের ব্যাটিং দক্ষতা দেখে সচিন তেন্ডুলকর, ভিভ রিচার্ডস, বিরাট কোহলি, রিকি পন্টিংয়ের মতো কিংবদন্তিদের সঙ্গে তুলনা করেছেন।

সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে মাত্র ৫১ বলে ১১২ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন সূর্যকুমার। তাঁর রানের সৌজন্যেই টিম ইন্ডিয়া পাঁচ উইকেটে ২২৮ রানের পাহাড় সমান স্কোর করে। শ্রীলঙ্কা ব্যাট করতে নামলে ভারতীয় বোলাররা তাদের ১৩৭ রানে গুঁড়িয়ে দেন।

কপিল দেব এবিপি নিউজকে বলেছেন, ‘কখনও কখনও আমি ওর ইনিংসকে কী ভাবে বর্ণনা করব, সেটা বুঝে উঠতে পারিনি। আমরা যখন সচিন তেন্ডুলকর, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলিকে দেখি, তখন অনুভব করি, একদিন এমন একজন খেলোয়াড় আসবে, যিনি আমাদের ভাবতে বাধ্য করবেন যে, তিনিও এই তালিকারই অংশ। ভারতে সত্যিই অনেক প্রতিভা আছে।।’

আরও পড়ুন: ইডেনে IND-SL ম্যাচের টিকিট বিক্রি শুরু, কত দাম, কী ভাবে সংগ্রহ করবেন, জেনে নিন

তিনি আরও যোগ করেছেন, 'ও (সূর্য) যে ধরনের ক্রিকেট খেলে, বিশেষ করে ফাইন লেগের উপর দিয়ে যখন ল্যাপ শট মারে, সেখানে এক জন বোলারের কী করার থাকতে পারে? ওকে ফুল ডেলিভারি করতে বোলাররা ভয় পায়। ও আপনাকে মিড অনের উপর দিয়ে মাঠের বাইরে পাঠাতে পারে, ফ্লিক করেও ছয় মারতে পারে, এটা বোলারদের জন্য কঠিন হয়ে উঠেছে। ধারাবাহিক ভাবে লাইন এবং লেন্থ সঠিক ভাবে পিক করছে ও। বোলারদের সঙ্গে খেলছে ও।

আরও পড়ুন: ভিডিয়ো- কোহলির ইনস্টা স্টোরিতে লাখ টাকার প্রতিক্রিয়া, সঙ্গে জবরদস্ত উত্তর সূর্যের

প্রাক্তন এই বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আরও বলেছেন, ‘কাউকে এই রকম ভাবে স্ট্রাইক করতে দেখাটা বিরল। আমি এবি ডি'ভিলিয়ার্স, ভিভিয়ান রিচার্ডস, সচিন তেন্ডুলকর, বিরাট কোহলি, রিকি পন্টিংয়ের মতো দুর্দান্ত ব্যাটসম্যানদের দেখেছি, কিন্তু কিন্তু খুব কম লোকই এত পরিষ্কার ভাবে বল মারতে পারে। খেলোয়াড়দের মানসিকতার সঙ্গে খেলছে সূর্যকুমার। টেনিসে আপনি আন্দাজ করার চেষ্টা করেন ডান দিকে না বাম দিকে কোথায় সার্ভিস পড়বে। ও আগেই অনুমান করে নিতে পারে বোলার কোথায় বল ফেলতে চলেছে। খুব অল্প ক্রিকেটারের এই ভগবান প্রদত্ত ক্ষমতা থাকে এই ভাবে খেলার। ওর মতো ক্রিকেটাররা শতাব্দীতে এক বার আসে।’

ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরির পর সূর্যকুমার এখন প্রথম বারের মতো আইসিসি টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে বড় কোনও সাফল্য পেতে চলেছেন। সূর্য তাঁর ক্যারিয়ারে প্রথম বারের মতো ৯০০ রেটিং পয়েন্ট স্পর্শ করার থেকে মাত্র কয়েক ধাপ দূরে। তিনি বর্তমানে ৮৮৩ পয়েন্ট নিয়ে টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে রয়েছেন।

বন্ধ করুন