বাংলা নিউজ > ময়দান > অফ-স্পিন খেলতে সচিনের কিছুটা সমস্যা হত, এমনটাই দাবি মুরলির
সচিনের সঙ্গে মুরলি।
সচিনের সঙ্গে মুরলি।

অফ-স্পিন খেলতে সচিনের কিছুটা সমস্যা হত, এমনটাই দাবি মুরলির

  • টেস্টে ৮০০ উইকেট এবং একদিনের ক্রিকেটে ৫৩০-এর বেশি উইকেট রয়েছে মুরলিথরনের ঝুলিতে। এখনও পর্যন্ত ক্রিকেটের এই দুই ফর্ম্যাটে সর্বোচ্চ উইকেট নিয়েছেন মুরলিই। শ্রীলঙ্কার সেই তারকা স্পিনার সচিনকে মোট ১৩ বার আউট করেছেন।

কিংবদন্তি ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকরের দূর্বলতার জায়গাটা নাকি খুঁজে বের করেছেন শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি স্পিনার মুথাইয়া মুরলিথরন। তাঁর দাবি, অফ-স্পিন বল খেলতে নাকি সচিনের কিছুটা হলেও সমস্যা হত। 

টেস্টে  ৮০০ উইকেট এবং একদিনের ক্রিকেটে ৫৩০-এর বেশি উইকেট রয়েছে মুরলির ঝুলিতে। এখনও পর্যন্ত ক্রিকেটের এই দুই ফর্ম্যাটে সর্বোচ্চ উইকেট নিয়েছেন মুরলিই। শ্রীলঙ্কার সেই তারকা স্পিনার সচিনকে মোট ১৩ বার আউট করেছেন। একমাত্র অস্ট্রেলিয়ার ব্রেট লি মুরলির থেকে বেশি বার সচিনকে প্যাভিলিয়নে ফিরিয়েছেন। আর সেই সংখ্যাটি ১৪ বার। 

একটি স্পোর্টস চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময়ে মুরলি দাবি করেছেন, ‘সচিনকে বল করতে ভয় লাগত না। কারণ ও মারত না। কিন্তু সেহওয়াগের মতো প্লেয়ার বেধরক মারত। সচিন নিজের উইকেট বাঁচিয়ে রাখত। ও বলটা খুব ভাল বুঝতে পারত, কী হতে চলেছে। এবং টেকনিকটাও ভাল ভাবে জানত।’

এর সঙ্গেই তিনি আরও বলেছেন, ‘আমি নিজের ক্রিকেট জীবনে বুঝেছি, সচিনের অফ-স্পিন খেলতে কিছুটা সমস্যা হত। লেগ স্পিন ও অসাধারণ ভাবেই খেলত। কিন্তু অফ-স্পিনে কোনও কারণে ওর সমস্যা হত। কারণ আমি ওকে অনেক বার আউট করেছি। শুধু তাই নয়, আমি দেখেছি, বহু অফ-স্পিনার ওর উইকেট নিয়েছে।’

মুরলি অবশ্য এই নিয়ে সচিনের সঙ্গে কখনও কোনও আলোচনা করেননি। তিনি বলেছেন, ‘এই নিয়ে আমি ওর সঙ্গে কখনও কথা বলিনি। এটা আমার নিজের মনে হয়েছে, ওর অফ-স্পিনে সমস্যা রয়েছে। যে কারণে অন্য বোলারদের তুলনায় ওকে বল করার ক্ষেত্রে আমি বেশি সুবিধে পেতাম। সচিনকে আউট করা কিন্তু সহজ বিষয় ছিল না।’

বন্ধ করুন