বাংলা নিউজ > ময়দান > কারাবাও কাপের ফাইনালের ছ'দিন আগে ছেঁটে ফেলা হল মোরিনহোকে
হোসে মোরিনহো।
হোসে মোরিনহো।

কারাবাও কাপের ফাইনালের ছ'দিন আগে ছেঁটে ফেলা হল মোরিনহোকে

  • ২০১৯ সালের নভেম্বরে মরিসিও পচেটিনোকে সরিয়ে জোসে মোরিনহোর হাতে টটেনহ্যামের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়েছিল। ১৭ মাসের মধ্যেই সেই সম্পর্ক ভেঙে গেল।

হোসে মোরিনহোকে ছাঁটাই করে ফেলল টটেনহ্যাম হটস্পার। ঘরোয়া লিগ এবং ইউরোপা লিগে ব্যর্থতার কারণেই তাঁকে ছেঁটে ফেলা হল বলে মনে করা হচ্ছে। এই মরশুমে প্রিমিয়ার লিগে একেবারেই ভাল জায়গায় নেই টটেনহ্যাম।

প্রিমিয়ার লিগের ৩২ ম্যাচ খেলে ১৪টিতে জয় পেয়েছে তারা। ৮টি ম্যাচ ড্র করেছে। আর হেরেছে ১০টি ম্যাচে। ৫০ পয়েন্ট নিয়ে লিগ তালিকার সাতে রয়েছে টটেনহ্যাম। মোরিনহোর কোচিংয়ে ৩২টি ম্যাচের মধ্যে ১০টিতেই হারা নিঃসন্দেহে বড় ব্যর্থতা। এ রকম ব্যর্থতা পর্তুগিজ কোচের ক্যারিয়ারে নেই বললেই চলে।

২০১৯ সালের নভেম্বরে মরিসিও পচেতিনোকে সরিয়ে হইহই করে মোরিনহোর হাতে টটেনহ্যামের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়েছিল। তার পর ১৭ মাস যেতে না যেতেই সেই সম্পর্কে টানাপোড়েন। সরিয়ে ফেলা হল মোরিনহোকেও।

এ দিকে কারাবাও কাপের ফাইনালের আগে মাত্র ছয় দিন বাকি। ২৫ এপ্রিল ওয়েম্বলিতে ম্যাঞ্চেস্টার সিটির বিরুদ্ধে ফাইনাল খেলতে নামবে টটেনহ্যাম। তার আগে কোচকে সরিয়ে দেওয়া নিঃসন্দেহে পুরো টিমের কাছে বড় ধাক্কা।

একা মোরিনহোকে নয়, সঙ্গে তাঁর সহকারীদেরও ছেঁটে ফেলল টটেনহ্যাম। সহকারী কোচ জোয়াও সাক্রামেন্তো, গোলকিপার কোচ নুনো স্যান্তোস, আর এক সহকারী কার্লোস লালিন, টেকনিক্যাল অ্যানালিস্ট জিয়োভানি সেরাকেও সরিয়ে দেওয়া হল।

টটেনহ্য়ামের চেয়ারম্যান ড্যানিয়েল লেভি বলেছেন, ‘হোসে এবং তাঁর কোচিং স্টাফেরা আমাদের ক্লাবের সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং সময়ে পাশে ছিল। আমি ব্যক্তিগত ভাবে মনে করি, ওর সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা খুবই ভাল। ওর কাজ নিয়ে খুশিও ছিলাম। কিন্তু দু'তরফের কিছু সমস্যা থেকে যাওযায় বিষয়টি এগিয়ে নিয়ে যাওয়া গেল না। টটেনহ্যামের জন্য ওর দরজা সব সময়েই খোলা থাকবে। টটেনহ্যামের জন্য ওর এবং ওর কোচিং স্টাফেদের যে অবদান রয়েছে, তার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।’

 আপাতত টটেনহ্যামের ছোটদের দলের দায়িত্বে থাকা রিয়ান ম্যাসন এবং ক্রিস পাওয়েলই দায়িত্ব সামলাবেন। নতুন মরশুমে কোচ ঠিক করা হবে। এ সবের মধ্যেই আবার টটেনহ্যাম রবিবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তারা উয়েফা বিরোধী সুপার লিগে অংশ নেবে। তারা ছাড়াও ইউরোপের মোট ১২টি নামী ক্লাব এই লিগে অংশ নিতে চলেছে।

বন্ধ করুন