বাংলা নিউজ > ময়দান > সন্তানের নাম ফাঁস করলেন যুবি, জানালেন কীভাবে বদলেছে জীবন
পাঁচ মাসে বদলে গেছে যুবরাজ সিং-এর জীবন (ছবি:HT)

সন্তানের নাম ফাঁস করলেন যুবি, জানালেন কীভাবে বদলেছে জীবন

  • গত পাঁচ মাসটা প্রাক্তন ক্রিকেটার যুবরাজ সিং-এর জন্য বিশেষ ছিল। ফাদার্স ডে-তে যুবরাজ খুবই উত্তেজিত এবং আবেগপ্রবণ হয়ে উঠেছেন। তিনি তার নবজাতক পুত্রের কথা বলেন। যুবি জানান তিনি তার পুত্রের নাম রেখেছেন ওরিয়ন কিচ সিং। নিজের স্ত্রী হ্যাজেল কিচ সিং ও পুত্র ওরিয়েনর সঙ্গে দারুণ সময় কাটাচ্ছেন যুবরাজ সিং।

মনিকা রাওয়াল কুকরেজা: গত পাঁচ মাসটা প্রাক্তন ক্রিকেটার যুবরাজ সিং-এর জন্য বিশেষ ছিল। ফাদার্স ডে-তে যুবরাজ খুবই উত্তেজিত এবং আবেগপ্রবণ হয়ে উঠেছেন। তিনি তার নবজাতক পুত্রের কথা বলেন। যুবি জানান তিনি তার পুত্রের নাম রেখেছেন ওরিয়ন কিচ সিং। নিজের স্ত্রী হ্যাজেল কিচ সিং ও পুত্র ওরিয়েনর সঙ্গে দারুণ সময় কাটাচ্ছেন যুবরাজ সিং। বাবার হওয়ার পরে প্রথম বছর নিজের সন্তানের সঙ্গে ফাদার্স ডে পালন করছেন যুবরাজ সিং। নিজের সেই অভিজ্ঞতার কথা জানান ভারতের এই বিস্ফোরক ব্যাটার। 

এই বিশেষ দিন নিয়ে বলতে গিয়ে যুবরাজ সিং বলেন, ‘এটা সত্যিই বিশেষ। আমার বাবা-মা আমাকে সবসময় বলতেন, ‘একদিন তুমি বাবা হবে, তখন তোমার জন্য তোমার বাবা-মায়ের ভালোবাসার গুরুত্বটা তুমি বুঝতে পারবে।’ সুতরাং, এখন আমি আসলে বুঝতে পেরেছি যে তারা কী বোঝাতে চেয়েছিলেন। যখন আপনার একটি সন্তান হয়, এটি এত বিশেষ এবং এমন একটি আশ্চর্যজনক অনুভূতি যা আপনি সত্যিই শব্দে বর্ণনা করতে পারবেন না। আপনি যখন আপনার স্ত্রীর ভিতর থেকে আপনার একটি অংশ বেরিয়ে আসতে দেখেন, তখন এটি খুব অপ্রতিরোধ্য। যখন আমাদের বাচ্চা বের হয়েছিল তখন আমি সত্যিই অভিভূত হয়েছিলাম। এটা আমাদের প্রথমবার, আমি কি বলব বা কি করব বুঝতে পারছিলাম না। আমাদের চোখে জল ছিল।’

এই পাঁচ মাসে কতটা বদলেছেন যুবরাজ সিং? সেই প্রশ্নের উত্তরে যুবি বলেন, ‘আমি যে বাবা হয়েছি সেটা বুঝতে একটু সময় লেগেছিল। প্রতিবার আমি ওরিয়নের দিকে তাকাই, এটি একটি আশ্চর্যজনক অনুভূতি যে এমন কেউ আছেন যিনি আপনার এবং আপনার স্ত্রীর একটি অংশ। এবং হ্যাঁ, আমি মনে করি আমি শালীনভাবে একজন হ্যান্ড-অন বাবা; হ্যাজেল আমাকে ভালো প্রশিক্ষণ দিয়েছে। আমি বলব না যে আমি আমার স্ত্রীর মতো নিখুঁত। তবে আমি তাকে একটি বোতলে করে খাওয়াতে পারি। তার ন্যাপি পরিবর্তন করতে পারি এবং তার পোশাক পরাতে পারি। যদিও এটি সবচেয়ে কঠিন অংশ যখন আমি তাকে কাপড় খুলে ফেলার চেষ্টা করি এবং সেগুলি তার ঘাড়ে আটকে যায় এবং সে কাঁদতে শুরু করে। আসলে, যখন আমি তার ন্যাপি পরিবর্তন করি এবং তার জামাকাপড় পরাই, তখন আমার সময় দরকার এবং আমি আমার চারপাশে লোক চাই না। এটি আমার জন্য একটি মিশনের মতো, কিন্তু আমি এখন এটা আনন্দের সঙ্গে করি। তিনি এই মুহূর্তে আমাকে ছাড়া সকলের উপর প্রস্রাব করেছেন, তাই আমি তার পরবর্তী লক্ষ্য।’

বাবা হওয়ার পরে প্রথমবার ফাদার্স ডে পালন করছেন যুবরাজ সিং। এই বিশেষ দিনে যুবরাজ সকলের উদ্দেশ্যে বার্তায় বলেন, ‘আপনার প্রথম সন্তান পাওয়াটা পৃথিবীর সেরা অনুভূতি। এই মুহূর্তটিকে লালন করুন, এটি ফিরে আসবে না। নিশ্চিত করুন যে আপনি যতটা সম্ভব বাচ্চার সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন। একবার আপনি আপনার সন্তানের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করলে এবং সে বড় হয়ে উঠলে, এটি আরও আশ্চর্যজনক হবে এবং আপনার শিশুরা আপনার বন্ধু হয়ে উঠবে। এটি একটি দুর্দান্ত যাত্রা, এটা আমি এতদিন শুনেছি এবার আমি এই যাত্রা করছি। আমিও এই যাত্রা শেষের অপেক্ষা করছি।’

 

বন্ধ করুন