বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > নবরাত্রিতে দুর্গাকে প্রসন্ন করুন এই ৯টি রঙে

নবরাত্রিতে দুর্গাকে প্রসন্ন করুন এই ৯টি রঙে

আজ থেকে শুরু হয়েছে নবরাত্রি। নবরাত্রির ৯ দিনে দুর্গার পৃথক পৃথক স্বরূপের পুজো হয়। দুর্গার নানান স্বরূপ অনুযায়ী বস্ত্র পরলে দেবীকে আরও প্রসন্ন করা যায়। মনে রাখবেন পুজোর সময় নোংরা ও ছেঁড়া জামাকাপড় পরতে নেই। এখানে জানুন কোন দিন কোন রঙের বস্ত্র পরা উচিত।

প্রতিপদ- প্রতিপদ হিমালয়কন্যা শৈলপুত্রীকে উৎসর্গীকৃত। এদিন লাল, গোলাপী, কমলা ও রানী রঙের কাপড় পরলে ও পুজো করলে লাভ হয়।
1/9প্রতিপদ- প্রতিপদ হিমালয়কন্যা শৈলপুত্রীকে উৎসর্গীকৃত। এদিন লাল, গোলাপী, কমলা ও রানী রঙের কাপড় পরলে ও পুজো করলে লাভ হয়।
দ্বিতীয়া- দ্বিতীয়ার দিনে দুর্গার ব্রহ্মচারিণী স্বরূপের পুজো হয়। এদিন সাদা, ক্রিম বা হলুদ রঙের কাপড় পরা শুভ। এই রঙের কাপড় পরে পুজো করলে সাধকের মেধাশক্তি বিকশিত ও সমস্ত মনস্কামনা পূর্ণ হয়।
2/9দ্বিতীয়া- দ্বিতীয়ার দিনে দুর্গার ব্রহ্মচারিণী স্বরূপের পুজো হয়। এদিন সাদা, ক্রিম বা হলুদ রঙের কাপড় পরা শুভ। এই রঙের কাপড় পরে পুজো করলে সাধকের মেধাশক্তি বিকশিত ও সমস্ত মনস্কামনা পূর্ণ হয়।
তৃতীয়া- এদিন দুর্গা পুজিত হন চন্দ্রঘণ্টা রূপে। চন্দ্রঘণ্টার শরীরের রঙ সোনার মতো উজ্জ্বল। এদিন হলুদ, লাল, জাফরানের রঙের কাপড় পরিধান করা উচিত। এর ফলে দুর্গা প্রসন্ন হন ও ভক্তদের দীর্ঘায়ু, আরোগ্য ও সুখী জীবনের আশীর্বাদ দেন।
3/9তৃতীয়া- এদিন দুর্গা পুজিত হন চন্দ্রঘণ্টা রূপে। চন্দ্রঘণ্টার শরীরের রঙ সোনার মতো উজ্জ্বল। এদিন হলুদ, লাল, জাফরানের রঙের কাপড় পরিধান করা উচিত। এর ফলে দুর্গা প্রসন্ন হন ও ভক্তদের দীর্ঘায়ু, আরোগ্য ও সুখী জীবনের আশীর্বাদ দেন।
চতুর্থী- এদিন কূষ্মাণ্ডার আরাধনা হয়। কূষ্মাণ্ডাই ব্রহ্মাণ্ডের রচনা করেন। তাঁর তেজ ও প্রকাশে দশদিক প্রকাশিত। ইনি প্রকৃতির দেবীও বটে। তাই চতুর্থীর দিন ক্রিম, হলুদ, সবুজ রঙের বস্ত্র পরলে কূষ্মাণ্ডার পুজোর ফলে অতিশয় বৃদ্ধি হয়।
4/9চতুর্থী- এদিন কূষ্মাণ্ডার আরাধনা হয়। কূষ্মাণ্ডাই ব্রহ্মাণ্ডের রচনা করেন। তাঁর তেজ ও প্রকাশে দশদিক প্রকাশিত। ইনি প্রকৃতির দেবীও বটে। তাই চতুর্থীর দিন ক্রিম, হলুদ, সবুজ রঙের বস্ত্র পরলে কূষ্মাণ্ডার পুজোর ফলে অতিশয় বৃদ্ধি হয়।
পঞ্চমী- কার্তিকেয় অর্থাৎ স্কন্দের মা হওয়ার সুবাদে দুর্গার পঞ্চম স্বরূপ স্কন্দমাতা নামে বিখ্যাত। সাদা, লাল বা সবুজ রঙের কাপড় পরে তাঁর পুজো করলে সন্তান-সুখ আরোগ্য ও জ্ঞান লাভ হয়।
5/9পঞ্চমী- কার্তিকেয় অর্থাৎ স্কন্দের মা হওয়ার সুবাদে দুর্গার পঞ্চম স্বরূপ স্কন্দমাতা নামে বিখ্যাত। সাদা, লাল বা সবুজ রঙের কাপড় পরে তাঁর পুজো করলে সন্তান-সুখ আরোগ্য ও জ্ঞান লাভ হয়।
ষষ্ঠী- এদিন দুর্গা পূজিত হন কাত্যায়নী রূপে। দেবীর এই স্বরূপের আরাধনার ফলে গৃহস্থ জীবন সুখময় হয়। এদিন লাল, মেরুন, কমলা, গোলাপী, গেরুয়া রঙের কাপড় পরা উচিত। 
6/9ষষ্ঠী- এদিন দুর্গা পূজিত হন কাত্যায়নী রূপে। দেবীর এই স্বরূপের আরাধনার ফলে গৃহস্থ জীবন সুখময় হয়। এদিন লাল, মেরুন, কমলা, গোলাপী, গেরুয়া রঙের কাপড় পরা উচিত। 
সপ্তমী- এদিন সমস্ত অসুরশক্তির বিনাশকারী কালরাত্রি রূপে পুজো পান দুর্গা। নবরাত্রির পুজোয় যাঁরা তন্ত্রসাধনা করেন, তাঁরা কালো রঙের বস্ত্র পরিধান করেন। এদিন বেগুনি, স্লেট রঙের, নীল অথবা আকাশি রঙের বস্ত্র পরিধান করলে দুর্গা প্রসন্ন হন ও ভক্তদের জীবনের সমস্ত কলহ দূর করে সুখ-শান্তি প্রদান করেন।
7/9সপ্তমী- এদিন সমস্ত অসুরশক্তির বিনাশকারী কালরাত্রি রূপে পুজো পান দুর্গা। নবরাত্রির পুজোয় যাঁরা তন্ত্রসাধনা করেন, তাঁরা কালো রঙের বস্ত্র পরিধান করেন। এদিন বেগুনি, স্লেট রঙের, নীল অথবা আকাশি রঙের বস্ত্র পরিধান করলে দুর্গা প্রসন্ন হন ও ভক্তদের জীবনের সমস্ত কলহ দূর করে সুখ-শান্তি প্রদান করেন।
অষ্টমী- দুর্গার অষ্টম স্বরূপ মহাগৌরী সর্বসৌভাগ্যদায়িনী হিসেবে খ্যাত। এনার স্বরূপ উজ্জ্বল ও শ্বেতবস্ত্র ধারণ করে রয়েছে। ইনি ধন, বৈভব ও সুখ-শান্তির অধিষ্ঠাত্রী দেবী। জাফরান রঙের, কমলা, লাল, গোলাপী রঙের কাপড় এদিন পরা উচিত। 
8/9অষ্টমী- দুর্গার অষ্টম স্বরূপ মহাগৌরী সর্বসৌভাগ্যদায়িনী হিসেবে খ্যাত। এনার স্বরূপ উজ্জ্বল ও শ্বেতবস্ত্র ধারণ করে রয়েছে। ইনি ধন, বৈভব ও সুখ-শান্তির অধিষ্ঠাত্রী দেবী। জাফরান রঙের, কমলা, লাল, গোলাপী রঙের কাপড় এদিন পরা উচিত। 
নবমী- দুর্গার নবম শক্তি সমস্ত সিদ্ধি দিয়ে থাকে। এদিন দেবী সিদ্ধিদাত্রী হিসেবে পূজিত হন। লাল, গোলাপী, ক্রিম, কমলা রঙের কাপড় পরে পুজো করলে ভক্তদের যশ, বল, কীর্তি প্রাপ্তি ঘটে।
9/9নবমী- দুর্গার নবম শক্তি সমস্ত সিদ্ধি দিয়ে থাকে। এদিন দেবী সিদ্ধিদাত্রী হিসেবে পূজিত হন। লাল, গোলাপী, ক্রিম, কমলা রঙের কাপড় পরে পুজো করলে ভক্তদের যশ, বল, কীর্তি প্রাপ্তি ঘটে।
অন্য গ্যালারিগুলি