বাড়ি > ভাগ্যলিপি > নির্জলা একাদশীতে দান করলে মিটবে অভাব
 নির্জলা একাদশীতে দানেরগুরুত্ব অপরিসীম। নিজের ক্ষমতা অনুযায়ী দান করলে বিষ্ণু প্রসন্ন হন।
 নির্জলা একাদশীতে দানেরগুরুত্ব অপরিসীম। নিজের ক্ষমতা অনুযায়ী দান করলে বিষ্ণু প্রসন্ন হন।

নির্জলা একাদশীতে দান করলে মিটবে অভাব

  • এদিন গরিবদের সাহায্য করলে সমস্ত সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় এবং বিষ্ণুর আশীর্বাদ লাভ হয়।

আজ নির্জলা একাদশী। মাসে দু'বার একাদশী ব্রত পালন করা হয় এবং বছরে মোট ২৪টি। একটি কৃষ্ণপক্ষের এবং আর একটি শুক্লপক্ষের একাদশী। 

পুরাণ অনুযায়ী এই ২৪টি একাদশীর মধ্যে নির্জলা একাদশী সর্বশ্রেষ্ঠ। এই একাদশী ব্রত পালন বছরের অন্যান্য সমস্ত একাদশীর সমান ফল দেয়। তবে মনে রাখবেন, যাঁরা উপোস করছেন, এদিন জল স্পর্শও করবেন না। আবার এদিন ভাত খাওয়া উচিত নয়। যাঁরা উপোস করছেন না তাঁদের ক্ষেত্রেও এদিন ভাত না খাওয়াই ভালো। আবার তামসিক ভোজনও নিষিদ্ধ। পুরাণ অনুযায়ী এদিন ব্রহ্মচর্য পালন করা উচিত।

ধর্মীয় গ্রন্থ অনুযায়ী, এই দিন দানেরগুরুত্ব অপরিসীম। নিজের ক্ষমতা অনুযায়ী দান করা উচিত। এতে বিষ্ণু প্রসন্ন হন। এদিন গরিবদের সাহায্য করলে সমস্ত সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় এবং বিষ্ণুর আশীর্বাদ লাভ হয়।  জেনে নিন নির্জলা একাদশীর দিন কী কী দান করা শুভ—

  • ধর্মীয় গ্রন্থ অনুযায়ী নুন দান করলে বাড়িতে কখনওই ভোজন বা অন্নের অভাব হয় না।
  • তিলের দান ব্যক্তিকে পুরনো রোগের হাত থেকে নিষ্কৃতি দেয়।
  • আবার দীর্ঘায়ুর জন্য বস্ত্র দান করা শুভ।
  • অন্ন দানও শুভ মনে করা হয়। ধর্মীয় গ্রন্হে বলা হয়েছে, যে ব্যক্তি অন্ন দান করেন তাঁর জীবনে কখনও কোনও অভাব থাকে না। এমন ব্যক্তির ওপর সব সময় ভগবানের আশীর্বাদ থাকে।
  • আবার ফলের দানও অত্যন্ত শুভ।

বন্ধ করুন