বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > জার্সি বদলাতে মরিয়া, বীরভূমে মাইক বাজিয়ে তৃণমূলের কাছে ক্ষমা চাইল অনুতপ্ত বিজেপি
মাইক বাজিয়ে তৃণমূলে ফিরতে চাওয়ার আবেদন করছেন বিজেপি কর্মীরা (নিজস্ব চিত্র)
মাইক বাজিয়ে তৃণমূলে ফিরতে চাওয়ার আবেদন করছেন বিজেপি কর্মীরা (নিজস্ব চিত্র)

জার্সি বদলাতে মরিয়া, বীরভূমে মাইক বাজিয়ে তৃণমূলের কাছে ক্ষমা চাইল অনুতপ্ত বিজেপি

  • ভোটের আগে তাঁরাই দলে দলে যোগ দিয়েছিলেন বিজেপিতে

‘আমরা ১ নম্বর সংসদের বিজেপি কর্মীবৃন্দ।২০২১এর বিধানসভা ভোটের আগে গ্রামের উন্নয়নমূলক কাজ সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য প্রচার করে উত্তেজনা ও গণ্ডগোলের সৃষ্টি করেছিলাম। সেগুলি ছিল ভিত্তিহীন ও সর্বতোভাবে মিথ্যা। আমরা গ্রামবাসীদের কাছে ক্ষমা চাইছি। কথা দিচ্ছি এই ধরণের মিথ্যাচার কোনওদিন করব না। ভুল স্বীকার করে তৃণমূল নেতৃত্ব ও বিধায়কের কাছে আবেদন জানাচ্ছি যাতে মা মাটি মানুষের উন্নয়নে শামিল হতে পারি ও তৃণমূলে যোগদান করতে পারি।’ এরপরই জয় বাংলা স্লোগান তোলেন বিজেপি কর্মীরা। বীরভূমের লাভপুর বিধানসভার বিপ্রটিকুরি গ্রামে ভরা বাজারে মাইক বাজিয়ে এই প্রচার শুনে অনেকেরই এদিন কার্যত ভিরমি খাওয়ার জোগাড়। এদিকে যে টোটোতে চেপে প্রচার করা হচ্ছিল তার সামনে আবার বিজেপির পতাকা বাঁধা ছিল। বাসিন্দাদের দাবি, ভোটের আগে অনেকেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে চলে গিয়েছিলেন। অনেককেই কার্যত ঘরছাড়া অবস্থায় থাকতে হচ্ছে। এবার তাঁরাই একেবারে মাইক বাজিয়ে ফিরতে চাইছেন তৃণমূলে। তবে গোটা ঘটনায় তৃণমূল ও বিজেপি নেতৃত্ব মুখ খুলতে চাননি। তবে অনুব্রতর গড়ে বিজেপি কর্মীদের এই প্রচারকে ঘিরে শোরগোল পড়েছে রাজনীতির আঙিনায়।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, ভোট মিটে গিয়েছি। ফলাফলের নিরিখে প্রত্য়াশার ধারে কাছে যেতে পারেনি বিজেপি। এদিকে ভোটের মুখে যারা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে চলে গিয়েছিলেন তাঁদের অনেকেই পড়েছেন মহা ফাঁপড়ে। বিজেপিতে যাওয়া নেতাদের অনেকেই তৃণমূলের গুণগান গাইছেন টুইট করে, সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর কর্মীরা একেবারে দল বেঁধে মাইক নিয়ে বেরিয়ে পড়ছেন। তবে সকলেরই একটাই কথা, ক্ষমা করে ফিরিয়ে নিন। 

 

বন্ধ করুন