বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ফুচকা খেয়ে হুগলিতে অসুস্থ শতাধিক, পৌঁছল মেডিক্যাল টিম

ফুচকা খেয়ে হুগলিতে অসুস্থ শতাধিক, পৌঁছল মেডিক্যাল টিম

প্রতীকি ছবি

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রোজের মতো স্থানীয় এক ফুচকা বিক্রেতার কাছ থেকে ফুচকা খেয়েছিলেন আসেপাশের গ্রামের কয়েকশ বাসিন্দা। রাত বাড়তেই তাদের নানা রকম পেটের উপসর্গ দেখা দেয়।

সন্ধে বেলা ফুচকা খেয়ে অসুস্থ গ্রামের শতাধিক। বুধবার এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ায় হুগলির পোলবার সুগন্ধা গ্রামে। স্থানীয়দের দাবি, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গ্রামের এক ফুচকাবিক্রেতার কাছ থেকে ফুচকা খান অনেকে। তার পরই শুরু হয় উপসর্গ। পরিস্থিতি মোকাবিলায় বুধবার গ্রামে পৌঁছয় স্বাস্থ্য দফতরের টিম।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রোজের মতো স্থানীয় এক ফুচকা বিক্রেতার কাছ থেকে ফুচকা খেয়েছিলেন আসেপাশের গ্রামের কয়েকশ বাসিন্দা। রাত বাড়তেই তাদের নানা রকম পেটের উপসর্গ দেখা দেয়। বমি ও ডায়েরিয়ার মতো উপসর্গ নিয়ে পোলবা হাসপাতালে ছোটেন একের পর এক রোগী। দোগাছিয়া, বাহির রানাগাছা ও মাকালতলা গ্রামে ঘরে ঘরে রোগী নিয়ে শুরু হয় ছোটাছুটি। রোগীর সংখ্যা বাড়তে থাকায় রাতেই পোলবা ব্লক হাসপাতাল থেকে অনেককে পাঠিয়ে দেওয়া হয় ইমামবাড়া হাসপাতালে।

সময়মতো সিদ্ধান্ত জানাবে শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি, অনুব্রতকে নিয়ে অবস্থান জানাল তৃণমূল

সকালে খবর পেয়ে গ্রামে পৌঁছয় ব্লক হাসপাতালের মেডিক্যাল টিম। অসুস্থদের চিকিৎসার পাশাপাশি অন্যান্য করণীয় বুঝিয়ে বলেন তাঁরা। ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক জানিয়েছেন, সুগন্ধায় ফুচকা খেয়ে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েছে শুনেছি। রাতে অনেক রোগী ভর্তি হয়েছে। তাই সকালে আমরা গ্রামে মেডিক্যাল টিম পাঠিয়েছি। যারা হাসপাতালে আসেননি তাদের ওষুধ ও ORS বিলি করেছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা।

ফুচকা বিক্রেতাকে চিহ্নিত করার চেষ্টা করছেন গ্রামবাসীরা। তবে এব্যাপারে পুলিশে এখনো কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি। অসুস্থদের মধ্যে কারও অবস্থায় গুরুতর নয় বলে জানানো হয়েছে হাসপাতালের তরফে।

 

বন্ধ করুন
Live Score