বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Elephant: ‌যুবককে পিষে মারল গজরাজ, ঝাড়গ্রামে হাতির তাণ্ডবে ব্যাপক আতঙ্ক
লোকালয়ে হাতি।

Elephant: ‌যুবককে পিষে মারল গজরাজ, ঝাড়গ্রামে হাতির তাণ্ডবে ব্যাপক আতঙ্ক

  • ঝাড়গ্রাম শহর সংলগ্ন সাপধরা গ্রাম পঞ্চায়েতের কুন্ডলডিহি এলাকায় কয়েকদিন ধরে হাতি তাণ্ডব চালাচ্ছে। গোডাউন থেকে ধানের বস্তা বের করে রাস্তায় ফেলে দিচ্ছে। ঘরবাড়ি ভাঙচুর করছে। এই পরিস্থিতিতে সোমবার ঝাড়গ্রাম শহরে হাতির হামলায় যুবকের মৃত্যু ঘটল। তাতে প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানিয়েছেন গ্রামবাসীরা।

জঙ্গল ছেড়ে লোকালয়ে ঢুকে পড়েছে গজরাজ। আর তাতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছিল। আজ, সোমবার সকালে এই হাতিটি ঝাড়গ্রামে আছড়ে, পিষে মেরে ফেলল এক যুবককে। তাতে আরও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। জঙ্গলমহলের এই জেলায় ঢুকে পড়ে গজরাজ। সেখানে মুখোমুখি হয় গজরাজ এবং যুবক। পালানোর চেষ্টা তখন বৃথা বুঝেও সেই পথেই হাঁটতে গিয়েছিলেন। কিন্তু তখন ওই যুবককে শুঁড়ে পেঁচিয়ে আছাড় মেরে, পা দিয়ে পিষে মারল দুটি হাতি।

ঠিক কী ঘটেছে ঝাড়গ্রামে?‌ পরিবার সূত্রে খবর, মৃত যুবকের নাম জয়দেব কিস্কু। তিনি ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা। কর্মসূত্রে স্ত্রীকে নিয়ে থাকেন ঝাড়গ্রাম পুরসভার ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে। আজ, সোমবার সকালে সাইকেলে নিয়ে স্ত্রীকে বসিয়ে ঝাড়গ্রাম বাজারে কাজে যাচ্ছিলেন জয়দেব। তখন ঝোপের আড়াল থেকে দুটি হাতি সাইকেলের সামনে চলে আসে। তখন পালানোর চেষ্টা করে তাঁর স্ত্রী প্রাণে বেঁচে যান। কিন্তু ওই দুটি হাতি জয়দেবকে শুঁড় দিয়ে পেঁচিয়ে প্রথমে আছাড় মারে। তারপর পা দিয়েপিষে চলে যায়। আর সাইকেল দুমড়ে দেয় হাতি দুটি।

তারপর ঠিক কী ঘটল?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, হাতি চলে যেতেই ওই যুবককে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যানবন দফতরের কর্মীরা এবং ঝাড়গ্রাম থানার পুলিশ। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে পাঠানো হয়। বন দফতরের পক্ষ থেকেমৃতেরস্ত্রীকেআর্থিক সাহায্য দেওয়ার কথা জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ঝাড়গ্রাম শহর সংলগ্ন সাপধরা গ্রাম পঞ্চায়েতের কুন্ডলডিহিএলাকায় কয়েকদিন ধরে হাতি তাণ্ডব চালাচ্ছে। গোডাউন থেকে ধানের বস্তা বের করে রাস্তায় ফেলে দিচ্ছে। ঘরবাড়ি ভাঙচুর করছে। ফসল খেয়ে নিচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে আজ, সোমবার ঝাড়গ্রাম শহরে হাতির হামলায় যুবকের মৃত্যু ঘটল। তাতে প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানিয়েছেন গ্রামবাসীরা।

বন্ধ করুন