বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > টুইটারে নিজেকে ‘প্রাক্তন’ ঘোষণা করে কয়েক মিনিটে সরালেন সৌমিত্র খাঁ
সৌমিত্র খাঁ। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক)
সৌমিত্র খাঁ। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক)

টুইটারে নিজেকে ‘প্রাক্তন’ ঘোষণা করে কয়েক মিনিটে সরালেন সৌমিত্র খাঁ

  • এর আগে যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা ঘোষণা করে ফেসবুকে দিলীপ ঘোষ ও শুভেন্দু অধিকারীর মুন্ডুপাত করেছিলেন সৌমিত্র।

সোশ্যাল মিডিয়ায় কাণ্ডকারখানার জন্য ফের একবার শিরোনামে বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। শনিবার হঠাৎ তাঁর টুইটার বায়োতে নিজেকে ‘প্রাক্তন BJYM সভাপতি’ লিখে দেন তিনি। কিছুক্ষণের মধ্যে ‘প্রাক্তন’ মুছেও ফেলে। বারবার এই ধরণের কাণ্ডকারখানায় সৌমিত্রর মানসিক স্থিরতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

শনিবার হঠাৎই টুইটারে নিজেকে ‘প্রাক্তন’ যুব মোর্চা সভাপতি বলে উল্লেখ করেন সৌমিত্র। সঙ্গে সঙ্গে জল্পনা শুরু হয়, তাহলে কি বড় কোনও পদক্ষেপ করতে চলেছেন তিনি? এরই মধ্যে হঠাৎ উঠে যায় ‘প্রাক্তন’ শব্দটি। পর পর এই ধরণের ঘটনায় সৌমিত্রর রাজনৈতিক পরিণতি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিজেপির অন্দরেই।

এর আগে যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা ঘোষণা করে ফেসবুকে দিলীপ ঘোষ ও শুভেন্দু অধিকারীর মুন্ডুপাত করেছিলেন সৌমিত্র। সবাই যখন ভেবে নিয়েছে মুকুলের হাত ধরে সৌমিত্র তৃণমূলে ফেরা পাকা তখন ফের ফেসবুকে পোস্ট করে নিজের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেন তিনি। জানা যায়, সৌমিত্রকে ফোন করেছিলেন খোদ অমিত শাহ।

তার পর পক্ষকাল কাটতে না কাটতে ফের একবার সৌমিত্র পদত্যাগ নিয়ে জল্পনা শুরু হতেই ডিগবাজি খেলেন তিনি।

বিজেপি নেতৃত্বের একাংশের মতে, আবেগপ্রবণ সৌমিত্র রাজনীতিক হিসাবে এখনো অতটা পরিণত নন। তাই হঠকারী কাজকর্ম করে বসেন তিনি। অনেকের মতে আবার দলীয় নেতৃত্বের ওপর চাপ বজায় রেখে খবরে থাকতে জেনে বুঝে এই ধরণের কাজ করেন তিনি।

 

বন্ধ করুন