বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'ব্যক্তিগত স্বার্থ দেখে দল কাজ করে না', ‘অভিমানী’ শান্তনুকে বার্তা দিলীপ ঘোষের
দিলীপ ঘোষ।
দিলীপ ঘোষ।

'ব্যক্তিগত স্বার্থ দেখে দল কাজ করে না', ‘অভিমানী’ শান্তনুকে বার্তা দিলীপ ঘোষের

  • এর আগে কতকটা শান্তনু ঠাকুরের দাবি মেনেই বনগাঁকে পৃথক সাংগঠনিক জেলা করেছিল বিজেপি নেতৃত্ব। দিলীপ ঘোষ রাজ্য সভাপতি থাকাকালীনই তা করা হয়েছিল।

মতুয়া বিধায়কদের পর এবার রাজ্য বিজেপির গ্রুপ ছেড়েছেন মতুয়া সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর। দলের রাজ্য কমিটিতে পর্যাপ্ত মতুয়া প্রতিনিধিত্ব না থাকায় শান্তনু ‘অভিমানী’ হয়েছেন বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। আর এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি তথা বর্তমানে দলের সর্বভারতীয় সহসভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘গ্রুপ নিয়ে বিজেপিতে রাজনীতি হয় না।’

বনগাঁর জেলা সভাপতি নিয়োগ নিয়ে ‘ক্ষুব্ধ’ শান্তনু ঠাকুরকে খোঁচা দিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘পদপ্রাপ্তি নিয়ে ক্ষোভ তৈরি হতে পারে। তবে দলের সমস্যা দলের অন্দরেই মেটানো হবে। আমাদের দল একটি শৃঙ্খলাবদ্ধ দল। কেবলমাত্র ব্যক্তিগত স্বার্থ দেখে দল কাজ করে না।’ উল্লেখ্য, এর আগে কতকটা শান্তনু ঠাকুরের দাবি মেনেই বনগাঁকে পৃথক সাংগঠনিক জেলা করেছিল বিজেপি নেতৃত্ব। দিলীপ ঘোষ রাজ্য সভাপতি থাকাকালীনই তা করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগেই ঘোষিত হয়েছে বিজেপির নয়া রাজ্য কমিটি৷ তার পর থেকেই হিড়িক পড়ে বিজেপি নেতা-বিধায়কদের দলের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়ার৷ এরপরই শান্তনু নতুন কমিটি গঠনের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করার জন্য সাতদিন সময় দিয়েছিলেন। চিঠি লিখেছিলেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডাকেও। রাজ্য কমিটিতে মতুয়া প্রতিনিধিত্ব নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন শান্তনু। এই আবহে সোমবার রাতে জানা যায়, রাজ্য বিজেপির সব অফিশিয়াল হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে বেরিয়ে যান শান্তনু। আর এরপরই রাজনৈতিক মহলে এই বিষয়ে চর্চা তুঙ্গে।

বন্ধ করুন