বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌এটা তো রবীন্দ্রজয়ন্তী নয়’‌, বিজেপির ২১ জুলাইয়ের সমাবেশে মন্তব্য হাইকোর্টের
কলকাতা হাইকোর্ট ( ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

‘‌এটা তো রবীন্দ্রজয়ন্তী নয়’‌, বিজেপির ২১ জুলাইয়ের সমাবেশে মন্তব্য হাইকোর্টের

  • তৃণমূল কংগ্রেসের এই ২১ জুলাই বরাবর হয়ে আসছে। গত দু’‌বছর করোনাভাইরাসের জন্য প্রকাশ্যে তা করা যায়নি। এবার অনেকটা নিয়ন্ত্রণে বলে প্রকাশ্যে করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর এটাই বড় সমাবেশ হতে চলেছে। তারই পাল্টা উলুবেড়িয়ায় বিজেপি সভা ডেকেছে। 

একুশে জুলাই তৃণমূল কংগ্রেসের শহিদ সমাবেশ হোক তা চায় না বিজেপি। এই নিয়ে এক চিকিৎসক কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেছেন। আবার একুশে জুলাই পাল্টা সভা উলুবেড়িয়ায় করতে চায় বিজেপি। আর তা নিয়েই এবার প্রশ্ন তুলে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। আর তাতে বেজায় বিপাকে পড়েছেন বিজেপি নেতৃত্ব।

ঠিক কী বলেছে কলকাতা হাইকোর্ট?‌ তৃণমূল কংগ্রেসের শহিদ দিবস পালনের দিনই কেন সভা করতে হবে? বিজেপিকে প্রশ্ন করল কলকাতা হাইকোর্ট। উলুবেড়িয়ার সভা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্ট জানতে চেয়েছে, ওই দিনের কোনও বিশেষ গুরুত্ব আছে কি? এটা তো রবীন্দ্র জয়ন্তী নয়, একইদিনে করতে হবে! এই প্রশ্ন শুনে আদালতে হোঁচট খান বিজেপির আইনজীবী। আদালত বিজেপির আইনজীবীকে দুপুর ৩টে ২০ মিনিটের মধ্যে কারণ জানাতে নির্দেশ দিয়েছে।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ তৃণমূল কংগ্রেসের এই ২১ জুলাই বরাবর হয়ে আসছে। গত দু’‌বছর করোনাভাইরাসের জন্য প্রকাশ্যে তা করা যায়নি। এবার অনেকটা নিয়ন্ত্রণে বলে প্রকাশ্যে করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর এটাই বড় সমাবেশ হতে চলেছে। তারই পাল্টা উলুবেড়িয়ায় বিজেপি সভা ডেকেছে। যাঁর নেতৃত্বে আছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আর তা নিয়ে মামলা হয় হাইকোর্টে। বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য জানতে চান, একইদিনে সভা করার কি বিশেষ কোনও কারণ রয়েছে? জবাবে বিজেপির আইনজীবী জানান অনেক আগেই এই কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছিল। তখন বিচারপতি আবার জানতে চান, ‘কতদিন আগে ঘোষণা করা হয়েছিল তার প্রমাণ দিন।’‌

ঠিক কী বলেছেন বিচারপতি?‌ এই সভা–সমাবেশ নিয়ে বিচারপতির পর্যবেক্ষণ, ‘যদি রবীন্দ্রনাথের জন্মদিন পালন করেন, আমি বলতে পারি না তা করবেন না। কিন্তু এটা তা নয়। ওই দিনেই সভা করার কী গুরুত্ব? ২২ বা ২৩ জুলাই করলে অসুবিধা কোথায়? প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন নিয়ে যেদিন ইচ্ছা প্রচার করা যেতে পারে। ওই দিন কেন?’‌ বিপাকে পড়েন বিজেপি আইনজীবী।

বন্ধ করুন