বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাবা - ছেলে পকেটে পিস্তল নিয়ে ঘোরে, গাংনাপুরে দাবি তৃণমূল নেতার প্রতিবেশীদের
হাঁসখালিতে নিহত কিশোরীর বাড়িতে পুলিশ। নিজস্ব চিত্র

বাবা - ছেলে পকেটে পিস্তল নিয়ে ঘোরে, গাংনাপুরে দাবি তৃণমূল নেতার প্রতিবেশীদের

  • অভীক মুখোপাধ্যায় খুনে আগেই জেলা পুলিশের তদন্তে অনাস্থা জানিয়েছিল পরিবার। 

নদিয়ার হাঁসখালিতে গণধর্ষণের জেরে নাবালিকার মৃত্যুতে অভিযুক্ত ব্রজগোপাল গোয়ালা ও তার বাবা তৃণমূল নেতা সমর গোয়ালার বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করছেন গ্রামবাসীরা। কারও দাবি, এর আগেও মেয়েদের সঙ্গে একই ঘটনা ঘটিয়েছে ছেলে। অনেকের আবার দাবি, বাবার সমর সব সময় পিস্তল নিয়ে ঘোরে। এমনকী পাড়ার অনেকে তার পিস্তলের গুলিও খেয়েছেন। একজন তো বলেই বসলেন, ‘ওর বাবা তো ডন।’

রবিবার গ্যাঁড়াপোতার গাজনা গ্রাম পঞ্চায়েতের পূর্বপাড়ার বাসিন্দা সমর গোয়ালার বাড়ি গিয়ে দেখা যায় বাইরে থেকে ঝুলছে তালা। টিনের চালার বাড়িতে কেউ নেই। প্রতিবেশীরা প্রথমে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দিতে চাননি। পরে ধীর ধীরে এগিয়ে এসে বাপ – ব্যাটার কীর্তি জানান।

প্রতিবেশী এক প্রৌঢ়া বলেন, ‘সোমবার রান্না করছিলাম। তখন দেখি মেয়েটাকে নিয়ে যাচ্ছে। মেয়েটা মাঝেমাঝেই আসে। সেদিন ওদের বাড়িতে পার্টি হচ্ছিল। ৬ – ৭ জন ছিল। সবাই ব্রজগোপালের বন্ধু। মেয়েটার সঙ্গে ওর ভালোবাসা ছিল।’

এর পরই চাঞ্চল্যকর দাবি করেন তিনি। জানান, ‘বাবা আর ছেলে বন্দুক নিয়ে ঘোরে। ওর বাবা তো ডন। পাড়ার অনেকেই ওর বাবার বন্দুকের গুলি খেয়েছে।’

আরেক প্রতিবেশী জানিয়েছেন, এর আগেও একটি মেয়েকে বাড়িতে এনে ধর্ষণ করেছিল অভিযুক্ত ব্রজগোপাল। তবে সেবার থানা - পুলিশ হয়নি।

এই ঘটনায় ব্রজগোপালকে গ্রেফতার করে মুখে কুলুপ এঁটেছে পুলিশ।

বন্ধ করুন