হাসপাতাল থেকে বাড়ির পথে নিতাইদাস বাবু।
হাসপাতাল থেকে বাড়ির পথে নিতাইদাস বাবু।

এক মাসের বেশি সময় ভেন্টিলেশনে থাকার পর করোনামুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরলেন প্রৌঢ়

  • করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর এক মাসের বেশি ভেন্টিলেশনে থেকে বেঁচে ফেরার নজির নেই।

করোনার বিরুদ্ধে চিকিৎসক ও রোগীর লড়াইয়ের জেদ মিরাকেল ঘটাল কলকাতায়। করোনা আক্রান্ত হয়ে এক মাসের বেশি সময় ভেন্টিলেশনে থাকার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন এক প্রৌঢ়। করোনামুক্ত নিতাইদাস মুখোপাধ্যায় টালিগঞ্জ এলাকায় সমাজসেবী বলে পরিচিত। চিকিৎসকদের দাবি, গোটা দেশে তো বটেই, বিদেশেও করোনার বিরুদ্ধে এমন লড়াই নজিরবিহীন।

গত ২৯ মার্চ জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ঢাকুরিয়ার বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন নিতাইদাস বাবু। পর দিনই তাঁর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। সেদিনই ভেন্টিলেশন দিতে হয় তাঁকে। সেই থেকে টানা ভেন্টিলেশনে তিনি। এর মধ্যে তাঁর করোনা সংক্রমণ সেরে গেলেও শ্বাসকষ্টের উপসর্গের নিরাময় হয়নি। ফলে জারি থাকে ভেন্টিলেশন সাপোর্ট। গত ২ মে পর্যন্ত সম্পূর্ণ ভেন্টিলেশনে ছিলেন তিনি। পরিস্থিতি সামান্য উন্নতি হলে তাঁকে ধীরে ধীরে ভেন্টিলেশন থেকে বাইরে আনেন তাঁরা। ভর্তি হওয়ার ৩৮ দিন পর শুক্রবার তাঁকে ছুটি দেন চিকিৎসকরা। 

চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর এক মাসের বেশি ভেন্টিলেশনে থেকে বেঁচে ফেরার নজির নেই। করোনা রোগীরা দিন দশেক ভেন্টিলেশনে থাকার পরেই সুস্থ হয়ে ওঠেন। কিন্তু ১ মাস ৪ দিন টানা ভেন্টিলেশনে থাকার নজির নেই। এদিন হাসপাতাল থেকে বাড়ি যাওয়ার সময় নিতাইদাস বাবুকে শুভেচ্ছা জানান হাসপাতালের চিকিৎসক ও আত্মীয়রা।

 

বন্ধ করুন