বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘মুকুল রায় টাকা নেননি, মির্জাকে দিতে বলেছিলেন’, নারদে বিস্ফোরক দাবি ম্যাথুর
‘মুকুল রায় টাকা নেননি, মির্জাকে দিতে বলেছিলেন’, বিস্ফোরক দাবি ম্যাথুর (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
‘মুকুল রায় টাকা নেননি, মির্জাকে দিতে বলেছিলেন’, বিস্ফোরক দাবি ম্যাথুর (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

‘মুকুল রায় টাকা নেননি, মির্জাকে দিতে বলেছিলেন’, নারদে বিস্ফোরক দাবি ম্যাথুর

  • ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচন এবং তার ঠিক আগে রাজ্য–রাজনীতি তোলপাড় করে দেওয়ার খবর প্রকাশ্যে এসেছিল। 

২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচন এবং তার ঠিক আগে রাজ্য–রাজনীতি তোলপাড় করে দেওয়ার খবর প্রকাশ্যে এসেছিল। হ্যাঁ, নারদ স্টিং অপারেশন। তা নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। কিন্তু তাতে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক এবং বর্তমানে বিজেপি‌র সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি মুকুল রায় ২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচনের সময় নারদ স্টিং অপারেশনে তাঁর হাত থেকে টাকা নেননি। নিজাম প্যালেসে দাঁড়িয়ে এই কথাই জানালেন ম্যাথু স্যামুয়েল। ওই স্টিং অপারেশনের কর্তা ম্যাথু ব্যক্তিগত কাজে কলকাতায় এসে শুক্রবার নিজাম প্যালেসে সিবিআইয়ের দফতরে যান। ম্যাথু যা বললেন তার সঙ্গে ভিডিয়ো ফুটেজের মিল রয়েছে খবর।

ভিডিয়ো ফুটেজে দেখা গিয়েছিল, ম্যাথু টাকার থলি নিয়ে মুকুল রায়ের সামনে গেলেও তা হাত পেতে নেননি বর্তমান বিজেপির সহ–সভাপতি। বরং ম্যাথুকে কিছু বলছিলেন বলে দেখা যায়। কী বলছিলেন, তা খুব একটা স্পষ্ট নয়। তবে টাকা না নেওয়ার ঘটনা স্পষ্ট বলে মত সংশ্লিষ্ট মহলের। 

শুক্রবার এই স্টিং অপারেশন নিয়ে আলোচনা প্রসঙ্গে ম্যাথু বলেন, ‘মুকুল রায়ের কাছে টাকা নিয়ে যাওয়ার পরে তিনি বর্ধমানের তৎকালীন পুলিশ সুপার এসএমএইচ সৈয়দ হোসেন মির্জাকে তা দিতে বলেন। আমি ওই পুলিশকর্তাকে টাকা দিয়ে আসি।’ এতদিন চুপচাপ থাকার পর কেন ম্যাথু প্রকাশ্যে এই কথা বললেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তিনি কি অন্য কোনও বার্তা দিতে চাইলেন?‌

ঘটনার সময় মুকুল রায় তৃণমূলে থাকলেও এখন তিনি বিজেপিতে। সেই কথা জানেন দুঁদে সাংবাদিক ম্যাথু। এবার মুকুলের দল বদল প্রসঙ্গে ম্যাথু বলেন, ‘সাংবাদিক হিসেবে স্টিং অপারেশন করেছিলাম। সেখানেই যা প্রমাণ করার করেছি। সিবিআই–ইডি’র সঙ্গে সহযোগিতা করেছি। কে দল বদলালেন, সেই বিষয়ে কিছু বলার নেই।’ তাহলে আজ এমন কী প্রয়োজন পড়ল টাকা দেওয়া–নেওয়া নিয়ে কথা বলার?‌ উত্তর খুঁজছে গোয়েন্দারা। নারদ তদন্তে মির্জাকে গ্রেফতার করেছিল সিবিআই। এখন জামিনে মুক্ত।

বন্ধ করুন