বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বেলা ১১টায় ফোন, স্যার দুটি দেহ ভাসছে রিজার্ভারে, গল্ফগ্রিনে ভয়াবহ ঘটনা
গল্ফগ্রিনে রিজার্ভার থেকে উদ্ধার দুটি দেহ (প্রতীকী ছবি)
গল্ফগ্রিনে রিজার্ভার থেকে উদ্ধার দুটি দেহ (প্রতীকী ছবি)

বেলা ১১টায় ফোন, স্যার দুটি দেহ ভাসছে রিজার্ভারে, গল্ফগ্রিনে ভয়াবহ ঘটনা

  • কার্যত উৎসবের আনন্দ যেন আচমকাই বদলে গেল বিষাদে।

দক্ষিণ কলকাতার গল্ফগ্রিনের নির্মীয়মাণ আবাসন। তারই ভূগর্ভস্থ জলাধার থেকে উদ্ধার পরপর দুজনের দেহ। পুজোর ঠিক আগে এই দেহ উদ্ধারকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য এলাকায়। কার্যত উৎসবের আনন্দ যেন আচমকাই বদলে গেল বিষাদে। ওই আবাসনের জলাধার থেকে কীভাবে দেহ উদ্ধার হল তা নিয়ে রহস্য দানা বেঁধেছে। পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার বেলা ১১টা ১০ মিনিট নাগাদ পুলিশের কাছে ফোন আসে। ফোনের অপর প্রান্ত থেকে পুলিশকে জানানো হয়, গল্ফগ্রিনের ১৯ নম্বর রসা রোডের সেকেন্ড লেনের ওই বহুতলের রিজার্ভারে দুজনের দেহ রয়েছে। 

 

পরে পুলিশ জানতে পারেন তারা বহুতলেই কাজে এসেছিলেন। প্রশ্ন উঠছে কীভাবে জলাধারের মধ্য়ে গিয়েছিলেন ওই দুই শ্রমিক?  পুলিশ সূত্রে খবর, এদিন জলাধারের ঢাকা খুলতেই দেখা যায় নিথর দুটি দেহ। প্রাথমিকভাবে পুলিশ জেনেছে মৃতের নাম শ্য়াম হালদার ও পবন পাল। এদিকে শ্যামের পরিবারের দাবি, বহুতলে কাজ করতে গিয়েছিলেন তারা। তারপরেই এই বিপর্যয়। ওদের খোঁজও পাওয়া যাচ্ছিল না। তারপর একেবারে জলাধারের মধ্যে থেকে উদ্ধার হল দেহ। এদিকে স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের ধারনা, ওই রিজার্ভার পরিষ্কার করতে নেমেছিলেন ওই দুজন ব্যক্তি। তারপরে তারা আর রিজার্ভার থেকে উঠতে পারেননি। এরপর পুলিশ গিয়ে দেহ উদ্ধার করে। 

 

বন্ধ করুন