বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > ভোট-পরবর্তী হিংসার তদন্তে ৪ সদস্যের দল গঠন শাহের মন্ত্রকের, আজই আসছে বাংলায়
ভোট-পরবর্তী হিংসার রূপ (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার)
ভোট-পরবর্তী হিংসার রূপ (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার)

ভোট-পরবর্তী হিংসার তদন্তে ৪ সদস্যের দল গঠন শাহের মন্ত্রকের, আজই আসছে বাংলায়

  • ভোট-পরবর্তী হিংসা নিয়ে রাজ্যের উপর আরও চাপ বাড়াল কেন্দ্র।

ভোট-পরবর্তী হিংসা নিয়ে রাজ্যের উপর আরও চাপ বাড়াল কেন্দ্র। বিধানসভা ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর বাংলা যে হিংসার ঘটনা ঘটেছে, তা তদন্ত করে দেখার জন্য চার সদস্যের একটি তথ্য-অনুসন্ধানকারী দল গঠন করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদার এক আধিকারিকের নেতৃত্বে সেই দল গঠন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে সেই দল রওনা দিয়েছে। সূত্রের খবর, দলটি রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় পর্যালোচনা যাবে। তার ভিত্তিতে অমিত শাহের মন্ত্রকের কাছে রিপোর্ট জমা দেবে।

তার আগে বুধবারই রাজ্যকে সতর্কবার্তা পাঠিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছে, দ্রুত রিপোর্ট পাঠাতে হবে। চিঠিতে রীতিমতো হুঁশিয়ারির সুরে জানানো হয়েছে, গত ৩ মে রাজ্যের থেকে ভোট-পরবর্তী হিংসা নিয়ে রিপোর্ট তলব করেছিল কেন্দ্র। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনও জবাব মেলেনি। সেই ‘দুর্ভাগ্যজনক’ কাজ থেকেই প্রমাণিত যে হিংসা বন্ধ করতে নবান্নের তরফে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। তাই দ্রুত রিপোর্ট না পাঠালে রাজ্য়ের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়। তা নিয়ে খুব সম্ভবত বৃহস্পতিবারই পালটা চিঠি দেবে নবান্ন। জানানো হবে যে হিংসার যখন ঘটনা ঘটছিল, তখন ক্ষমতায় আসেনি নয়া সরকার। নির্বাচন কমিশনের হাতেই ছিল রাজ্যের প্রশাসন এবং আইন-শৃঙ্খলা ব্যবস্থা। তার ফলে নয়া সরকারের শুরুতেই কেন্দ্র-রাজ্যের তরজা চরমে উঠবে বলে ধারণা সংশ্লিষ্ট মহলের।

গত রবিবার রাজ্যে ভোটের ফল প্রকাশের পর থেকে তৃণমূল কংগ্রেস, বিজেপি এবং সিপিআইএম মিলিয়ে প্রায় ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই হিংসার অভিযোগ উঠেছে শাসক দলের বিরুদ্ধেই। যদিও বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডা দাবি করেছেন, কমপক্ষে ১৪ জন বিজেপি কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। ঘরছাড়া আছেন এক লাখের বেশি বিজেপিকর্মী।

বন্ধ করুন