বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘ওই অ্যাক্টিংটা আমি মনে হয় রপ্ত করতে পারিনি’, কেন এই আক্ষেপ ‘রাহুল’ অনিন্দ্যর?
গাঁটছড়ার এক দৃশ্যে অনিন্দ্য

‘ওই অ্যাক্টিংটা আমি মনে হয় রপ্ত করতে পারিনি’, কেন এই আক্ষেপ ‘রাহুল’ অনিন্দ্যর?

  • হাতে ওয়েব সিরিজের কোনও কাজ নেই, তাতেই অনিন্দ্যর দাবি তাঁর নাকি ‘শনির দশা’ চলছে ওয়েবে।

এই মুূহূর্তে বাংলা টেলিভিশনের পর্দার এক নম্বর সিরিয়াল ‘গাঁটছড়া’। আর স্টার জলসার এই মেগায় খলনায়কের চরিত্রে দাপটের সঙ্গে অভিনয় করছেন অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়। একটা সময় ছোটপর্দার পরিচিত মুখ ছিলেন অনিন্দ্য, মাঝে কয়েকটা বছর সিনেমা নিয়েই ব্যস্ত ছিলেন। কিন্তু ‘গাঁটছড়া’র রাহুল হয়ে ফের ছোটপর্দায় হাজির তিনি। আর শুরু থেকেই তাঁর কপালে জুটছে দর্শকদের গালি আর ঘৃণা। আসলে রাহুলের চরিত্রটি এতটাই সাবলীলভাবে অনিন্দ্য ফুটিয়ে তুলছেন যে তাঁকে দেখলে রাগ হওয়াটাই স্বাভাবিক।

খড়ি আর ঋদ্ধিমানের প্রেম কাহিনিতে নতুন কী বিপদ ডেকে আনবে রাহুল সেই নিয়ে সারাক্ষণ আশঙ্কায় ফ্যানেরা। কিন্তু এই সাফল্যের মাঝেও মন খারাপ অনিন্দ্যর। তাই তো সোশ্যাল মিডিয়ায় মনের ঝাঁপি উজাড় করে দিয়েছেন অভিনেতা। আসলে টেলিভিশনে বা রুপোলি পর্দায় চুটিয়ে কাজ করলেও অনিন্দ্যর হাতে ওয়েব সিরিজের কোনও কাজ নেই, তাতেই অভিনেতার দাবি তাঁর নাকি ‘শনির দশা’ চলছে ওয়েবে।

ফেসবুক পোস্টে তিনি লেখেন, ‘ পয়লা এপ্রিল আবার কাঞ্চনজঙ্ঘা রিলিজ করছে। আগামী ২০শে মে বেলাশুরু রিলিজ করছে। তার প্রথম গান সোহাগে আদরে আসছে। টিভিতে গাঁটছড়া আপনারা সাদরে গ্রহণ করেছেন। রাহুলের প্রতি আপনাদের ঘৃণাই আমার কাছে ভালোবাসা। কোনও ওয়েব সিরিজ এর রিলিজ নেই’।

অনিন্দ্য আরও যোগ করেন, তিনি হয়ত ওয়েবের অ্যাক্টিংটা ঠিকভাবে রপ্ত করতে পারেনি। লেখেন, ‘ওয়েবে আমার শনির দশা চলছে অথবা ওই অ্যাক্টিংটা আমি এখনও মনে হয় রপ্ত করতে পারিনি। যাই হোক টিভি আর সিনেমা নিয়েই আছি’। তবে তিনি সেই নিয়ে ‘ভালো’ আছেন তা জানাতে ভোলেননি।

মন্তব্য বাক্সে ‘রাহুল’ অনিন্দ্যকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন ফ্যানেরা। তাঁদের মতে, ‘এটাই যথেষ্ট, আর কী চাই!’ কেউ লিখেছেন, ‘হ্যাঁ, রাহুলকে ঘৃণা করি ঠিক, কিন্তু আপনার অভিনয়ে মুগ্ধ’।

ইতিমধ্যেই কোমরবেঁধে ‘বেলাশুরু’র প্রচারে নেমে পড়েছেন অনিন্দ্য। সমানতালে চলছে ‘আবার কাঞ্চনজঙ্ঘা’র প্রমোশনও। ছোটপর্দা আর বড়পর্দায় ভালোই ব্যালেন্স বজায় রাখছেন ‘গাঁটছড়া’র রাহুল। 

বন্ধ করুন