বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সুশান্তের জীবন নিয়ে তৈরি ছবির মুক্তিতে স্থগিতাদেশ নয়,প্রয়াত অভিনেতার বাবার আবেদন খারিজ হাইকোর্টে
মুক্তিতে বাধা নেই 
মুক্তিতে বাধা নেই 

সুশান্তের জীবন নিয়ে তৈরি ছবির মুক্তিতে স্থগিতাদেশ নয়,প্রয়াত অভিনেতার বাবার আবেদন খারিজ হাইকোর্টে

সুশান্তের জীবন নিয়ে তৈরি একাধিক ছবি নিষিদ্ধের আবেদন খারিজ করল দিল্লি হাইকোর্ট। 

বড় ধাক্কা সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবারের জন্য।বৃহস্পতিবার দিল্লি হাইকোর্টে খারিজ হয়ে গেল সুশান্তের জীবনের উপর ভিত্তি করে তৈরি ফিল্ম ‘ন্যায় : দ্য জাস্টিস’ ('Nyay: The Justice')-এর মুক্তিতে স্থগিতাদেশ চেয়ে দাখিল করা কেকে সিং-এর আবেদন। প্রয়াত অভিনেতার বাবার আর্জি খারিজ করলেন বিচারপতি সঞ্জীব নরুলা। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবন ও অকাল মৃত্যুর ঘটনাকে রুপোলি পর্দায় তুলে ধরা নিয়ে ঘোরতর আপত্তি রয়েছে প্রয়াত অভিনেতার পরিবারের। সেকথা আগেও জানিয়েছিলেন তাঁর দিদি প্রিয়াঙ্কা সিং। তবুও বলিউড পরিচালকরা একের পর এক ছবি তৈরি করে চলেছেন, যেখানে ঘুরে ফিরে আসছে এক তরুণ এবং সফল বলিউড অভিনেতার মৃত্যুর গল্প। এই নিয়ে গত এপ্রিলেই দিল্লি হাইকোর্টে পিটিশন দাখিল করেছিলেন সুশান্তের বাবা কেকে সিং। 

আবেদনের কপিতে কেকে সিং জানিয়েছিলেন তাঁর ছেলের মৃত্যুর ঘটনাকে ভিন্ন ভিন্ন থিয়োরির মাধ্যমে নিজের মতো করে বক্স অফিসে ক্যাশ-ইন করবার চেষ্টা করা হচ্ছে। যা তাঁর পরিবারের পক্ষে সম্মানহানির ঘটনা, পাশাপাশি সেই ছবিগুলি সুশান্তের মৃত্যু তদন্তকেও প্রভাবিত করতে পারে। পিটিশনে বলা হয়েছে, ‘ন্যায় : দ্য জাস্টিট', সুইসাইড অর মার্ডার : এ স্টর ওয়াজ লস্ট’, ‘শশাঙ্ক’-এর মতো ছবি নিয়ে আবেদনকারীর আপত্তি রয়েছে কারণ তা প্রয়াত সুশান্ত সিং রাজপুত ও তাঁর পরিবারের মর্যাদা ও সম্মানের পক্ষে ক্ষতিকর হতে পারে'। এবং এই সকল ছবির নির্মাতারা কেউই আবেদনকারীর কাছে এই ছবি তৈরির অনুমতি নেননি।

গত ২রা জুন এই মামলার শুনানি শেষ হয়েছিল দিল্লি হাইকোর্টে, সেই সময় রায় সংরক্ষিত রেখেছিলেন বিচারপতি, অবশেষে আজ প্রযোজকদের পক্ষেই রায় গেল। গোটা বিষয় নিয়ে ফিল্ম নির্মাতা ও নির্দেশকদের কৌঁসুলি এপি সিং জানান, ‘এটা একটা বড় জয় আমাদের জন্য। এটা শুধু আমাদের জয় বললে ভুল হবে,এটা সেই সকল চলচ্চিত্র নির্মাতাদের জয়, যাঁরা সমাজকে সঠিক দিশা দেখাতে ছবি তৈরি করেন'।

গত বছর ১৪ই জুন ৩৪ বছর বয়সী সুশান্ত সিং রাজপুতের রহস্যমৃত্যু হয়। আপতত এই মৃত্যুরহস্যের তদন্ত চালাচ্ছে সিবিআই। পাশাপাশি সুশান্তের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত মাকদকাণ্ড ও আর্থিক তছরূপের মামলার তদন্ত এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে এনসিবি ও ইডি। 

 

বন্ধ করুন