বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > প্রেমে বিশ্বাস আজও অটুট, ভবিষ্যতে বাবা হতে চান ‘সিঙ্গল’ দিনো মোরিয়া
দিনো মোরিয়া। (ছবি সৌজন্যে -হিন্দুস্তান টাইমস )
দিনো মোরিয়া। (ছবি সৌজন্যে -হিন্দুস্তান টাইমস )

প্রেমে বিশ্বাস আজও অটুট, ভবিষ্যতে বাবা হতে চান ‘সিঙ্গল’ দিনো মোরিয়া

  • 'দ্য এম্পায়ার' ওয়েব সিরিজে অভিনয় করার সুবাদে বহু দিন পর ফের একবার খবরে দিনো মোরিয়া।তবে ৪৫ বছর বয়সেও 'সিঙ্গল' তিনি। তবে ভবিষ্যতে প্রেমেও যেমন পড়তে চান তেমনি চান পিতৃত্বের স্বাদও।

'দ্য এম্পায়ার' ওয়েব সিরিজে অভিনয় করার সুবাদে বহু দিন পর ফের একবার খবরে দিনো মোরিয়া। ইতিমধ্যেই এই সিরিজে দিনোর লুক ও অভিনয় দেখে নড়েচড়ে বসেছে দলিউড। তারিফ শোনা গেছে সমালোচকদের মুখেও। এক সাক্ষাৎকারে ডিনো জানালেন একটা সময়ের পর নিজের মনমতো ছবির প্রস্তাব একেবারেই পাচ্ছিলেন না। তাই ইচ্ছে থাকলেও বাধ্য হয়ে অভিনয়ের কেরিয়ার থেকে ব্রেক নিতে হয়েছিল তাঁকে। তবে বর্তমানে ছবিটা ভিন্ন। ফের একবার নানান ছবির প্রস্তাব পাওয়া শুরু করেছেন এই বলি-অভিনেতা। তবে ৪৫ বছর বয়সেও 'সিঙ্গল' তিনি। প্রশ্নোত্তরের ফাঁকে বিয়ে থেকে সন্তান, সবকিছু নিয়েই নিজের বক্তব্য পেশ করলেন তিনি।

দিনো জানিয়েছেন একাধিক সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। সেসব সম্পর্কে থাকাকালীন নানান চড়াই উৎরাইয়ের মধ্যে দিয়ে গেছেন তিনি। যার বেশিরভাগটাই অনেকে জানে। তার কারণ হিসেবে জানালেন, নিজের জীবনকে কখনওই আড়াল করে রাখেননি তিনি। দম্পর্কে ঠকেছেন, হৃদয়ও ভেঙেছে। তবে ৪৫ পেরিয়েও 'সিঙ্গেল' হওয়ার কারণ হিসেবে মুচকি হেসে দিনোর যুক্তি, 'দেখি জীবন আমাকে কী দেবে বলে প্রস্তুত হয়ে রয়েছে'। তবে পাশাপাশি এও জানাতে ভুললেন না যে প্রেম-ভালোবাসায় আজও তাঁর বিশ্বাস রয়েছে। ভবিষ্যতে ঘরও বাঁধবেন। সন্তানের বাবাও হতে চান, কারণ শিশুদের অসম্ভব ভালোবাসেন তিনি। তাই বাবা হিসেবে যে তিনি দুর্দান্ত হবেন, সেই হিসেবে কোনও সন্দেহ নেই তাঁর! বলি-অভিনেতার কথায়, ' কেউ আপনার পাশে আছে, এই বোধে মত গভীর সুখ আর তৃপ্তি অন্য কোনও কিছুতে নেই'। তাই তো ভালোবাসা শব্দখানা আজও যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ এই বলি-অভিনেতার কাছে। দিনো বলেন, 'প্রেম আসলে ভীষণ সহজ। আমরাই খামোখা সেটাকে জটিল করে তুলি। যদি সম্পর্কে থাকা দু'টি মানুষ পরস্পর পরস্পরের প্রতি সৎ থাকে এবং এই সম্পর্কটাকে শ্রদ্ধা করে তাহলে পৃথিবীতে এর থেকে আনন্দের বিষয় আর অন্য কিছুই নেই'।

২০১০ সালে বি-টাউন থেকে একরকম বাধ্য হয়েই পাততাড়ি গোটাতে হয়েছিল দিনো মোরিয়াকে। তাঁর দাবি, ভালো ছবি কিংবা নামকরা প্রযোজনা সংস্থার ছবির প্রস্তাব আসা একেবারেই বন্ধ হয়ে গেছিল। ওই সময়ে যে ধরনের ছবির প্রস্তাব পাচ্ছিলেন তা যদি তিনি গ্রহণ করতেন তাহলে কেরিয়ারের আরও বারোটা বেজে যেত তাঁর। এতটাই নিম্ন রুচির ছিল সেসব ছবি।

বন্ধ করুন