বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'মেরি কমের চরিত্র উত্তর-পূর্ব ভারতের কারও করা উচিত ছিল', শেষমেশ কবুল প্রিয়াঙ্কার
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এবং মেরি কম (ডান দিকে)

'মেরি কমের চরিত্র উত্তর-পূর্ব ভারতের কারও করা উচিত ছিল', শেষমেশ কবুল প্রিয়াঙ্কার

  • 'মেরি কম'-এর মুক্তির ৮ বছর পর প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন তাঁকে নয়, মেরি কমের চরিত্রে অন্য কাউকেই কাস্ট করা উচিত ছিল!

২০১৪ সালে বক্স অফিসে সফল হওয়ার পাশাপাশি ছবি সমালোচকদেরও বিস্তর তারিফ কুড়িয়েছিল 'মেরি কম'। জাতীয় পুরস্কারের সম্মানেও ভূষিত হয়েছিল এই ছবি। ছবিতে অলিম্পিকজয়ী বক্সারের ভূমিকায় দেখা গেছিল প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে। তবে এতদিন পর প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন তাঁকে নয়, মেরি কমের চরিত্রে অন্য কাউকেই কাস্ট করা উচিত ছিল!

‘মেরি কম’ ছবিটি মুক্তির পর দেশের উত্তর-পূর্বে বিভিন্ন ধরনের বিতর্ক হয়েছে। কখনও মণিপুরের মানুষ মেরির ভূমিকায় প্রিয়ঙ্কার অভিনয় করা নিয়ে আপত্তি করেছেন।কখনও বা পিএলএ জঙ্গিদের হুমকিতে ইম্ফলের বেশ কিছু সিনেমা হলে এই ছবি দেখানো যায়নি। আবার মণিপুর নিবাসী বিশ্বজয়ীর সঙ্গে প্রিয়াঙ্কার মুখের গড়নের কোনও মিল নেই বলেও এই বলি-সুন্দরীর কাস্টিং নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। প্রতিবাদ করেছিলেন উত্তর-পূর্ব ভারতের বহু মানুষ।তখন সেই প্রসঙ্গে টুঁ শব্দটি না করলেও সম্প্রতি প্রিয়াঙ্কা নিজেই বলেছেন, 'মেরি কমের চরিত্রে উত্তর-পূর্ব ভারতের কোনও অভিনেত্রীকেই কাস্ট করা উচিত ছিল।'

'দেশি গার্ল' এর কথায়, 'দেখুন, আমি জানি মেরি কমের সঙ্গে মুখের কিংবা চেহারার তেমন কোনও সাদৃশ্য নেই আমার। তবে কী জানেন তো মেরি কম-এর মতো জীবন্ত কিংবদন্তির চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ হাতছাড়া করতে চাইনি একদম। অভিনেত্রী হিসেবে বেশ লোভ হয়েছিল। তাছাড়া, একজন মহিলা হিসেবে ও আমাকে সবসময়ে অনুপ্রেরণা জুগিয়ে গেছে।'

প্রসঙ্গত, মেরি কমের মণিপুরের গ্রামের বাড়িতে গিয়ে বেশ কিছু সময় কাটিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা। তাঁর পরিবারের বাকি সদস্যদের সঙ্গে দিনের পর দিন দেখা করেছেন, জানার চেষ্টা করেছেন মেরির ব্যাপারে খুঁটিনাটি সবকিছু। বহু মাস বক্সিংয়ের ট্রেনিংও নিয়েছিলেন, যাতে পর্দায় এই অলিম্পিকজয়ীর ভূমিকায় নিজেকে যথাযত ফুটিয়ে তোলা যায়।

বন্ধ করুন