বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > একাকীত্বের গল্প বলবে প্রসেনজিৎ-জয়ার রবিবার, প্রকাশ্যে ছবির ট্রেলার
নন্দনে রবিবারের ট্রেলার লঞ্চে প্রসেনজিত্, জয়া (নিজস্ব চিত্র)
নন্দনে রবিবারের ট্রেলার লঞ্চে প্রসেনজিত্, জয়া (নিজস্ব চিত্র)

একাকীত্বের গল্প বলবে প্রসেনজিৎ-জয়ার রবিবার, প্রকাশ্যে ছবির ট্রেলার

  • রবিবার আবার কাছাকাছি এলেন প্রসেনজিৎ-জয়া। ১৫ বছর পর দেখা দুই প্রাক্তনের, তবে কি বদলে যাবে সম্পর্কের সমীকরণ ? ঘুচবে আসীমাভ-সায়নীর একাকীত্ব ?

শনিবার বিকালে প্রকাশ্যে এল প্রসেনজিৎ-জয়ার রবিবারের ট্রেলার। রবিবার বেশিরভাগ মানুষের কাছে ছুটির দিন, চুটিয়ে গল্প-আড্ডা কিংবা ভালোবাসার মানুষের সঙ্গে লং ড্রাইভে বেরিয়ে পরা । তবে পরিচালক অতনু ঘোষের কাছে রবিবারের সংজ্ঞাটা বোধহয় একটু আলাদা । অন্তত রবিবারের ট্রেলার সে কথাই বলছে। সম্পর্কের এক অভিনব রোমাঞ্চ আর একাকীত্বের যন্ত্রণা ওঠে এসেছে রবিবারের ঝলকে।

এই ছবিতেই প্রথমবার জুটি বাঁধলেন প্রসেনজিৎ-জয়া। এদিন নন্দনে ছবির ট্রেলার লঞ্চে সামিল হয়েছিলেন ছবির কলাকুশলীরা। ছবিতে প্রসেনজিৎ অভিনীত চরিত্রটির নাম অসীমাভ, আর সায়নীর চরিত্রে ধরা দেবেন জয়া এহেসান। পনেরো বছর পর এক রবিবারে দেখা দুই প্রাক্তনের। একটা দিনের গল্প বলবে এই ছবি। প্রাক্তনের গল্প হলেও এই ছবিতে কোন ফ্ল্যাশব্যাক নেই। শুধু সেই রবিবার অসীমাভ এবং সায়নির জার্নি ফুটে ওঠবে এই ছবিতে।



পরিচালকের কথায়, ‘একাকীত্বের গল্প বলবে রবিবার। ময়ূরাক্ষী করার সময়ই ঠিক করেছিলাম একাকীত্ব নিয়ে একটা ট্রিলজি বানাবো। সেই থেকেই শুরু বিনিসুতো এবং রবিবার। তিনটে একদম আলাদা গল্প, একটার সঙ্গে অন্যের সঙ্গে কোনো মিল নেই। তবে কোথাউ গিয়ে প্রত্যেকটা ছবির কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে একাকীত্ব আর সম্পর্কের টানাপোড়েন। কোথাউ সেটা বাবা-ছেলের, কোথাউ প্রাক্তন জুটির আবার কোন জায়গায় দুটো সম্পূর্ন অচেনা মানুষের। ছবিগুলোর কোন ক্রম নেই, মানে আপনি আগে রবিবার থেকে পরে ময়ূরাক্ষী দেখতে পারেন, কোনো অসুবিধা নেই’।



ছবির একটি দৃশ্যে অসীমাভ ও সায়নী (সৌজন্যে ইউটিউব)
ছবির একটি দৃশ্যে অসীমাভ ও সায়নী (সৌজন্যে ইউটিউব)

বুম্বাদার কথায়, ‘ছবিটা নিয়ে নানা রকম ভাবনা হতে পারে, সেটাই রবিবারের সবচেয়ে বড়ো মজা। কেউ ভাবতে পারেন এটা প্রেমের গল্প, কেউ ভাবতে পারেন থ্রিলার, কেউ আবার কমেডি। তবে সবার ভালো লাগার ছবি রবিবার। ছবি দেখার আমার অভ্যেস রয়েছে, ভারতবর্ষের কোনো ছবিতে আমি অসীমাভ আর সায়নীকে খুঁজে পাই নি। এই দুটো চরিত্র করতে আমাকে, জয়াকে বেশ বেগ পেতে হয়েছে’।



দুই তারকার মিস্টি একটা মুহুর্ত (নিজস্ব চিত্র)
দুই তারকার মিস্টি একটা মুহুর্ত (নিজস্ব চিত্র)

‘এক দিনের ঘটনা তবে একটা জীবনপ্রবাহের মতো। আমরা এমন চরিত্র তো সবসময় পাই না যা আমাদের জীবনে মাইলস্টোন হয়ে থাকবে, কিন্তু সায়নী তেমনই এক চরিত্র। এই চরিত্রটি সত্যি আমার ঘাম ঝড়িয়েছে। বুম্বাদার সঙ্গে কাজ করার জন্য একরকমই এক গল্পের অপেক্ষায় ছিলাম। আমাদের ছবিটিতে অভিনয় করতে কষ্ট হলেও, দর্শকদের কিন্তু বুঝতে দুর্বোধ্য হবে না’, এদিন রবিবার প্রসঙ্গে এমনটাই বললেন ওপার বাংলার চর্চিত নায়িকা জয়া এহেসান।



সায়নী হয়ে ওঠা কঠিন চ্যালেঞ্জ ছিল জয়ার কাছে (নিজস্ব চিত্র)
সায়নী হয়ে ওঠা কঠিন চ্যালেঞ্জ ছিল জয়ার কাছে (নিজস্ব চিত্র)

ছবির সঙ্গীতের দায়িত্বভার সামলেছেন দেবজ্যোতি মিশ্র। ২৭ ডিসেম্বর মুক্তি পেতে চলেছে অতুন ঘোষ পরিচালিত রবিবার।

বন্ধ করুন