বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Mir Afsar Ali: শিব-দুর্গাকে 'ব্যাঙ্গ' মীরের! নেটপাড়ার চ্যালেঞ্জ, ‘ধক থাকলে ইদেও মস্করা কোরো'
গলায় সাপ ঝুলিয়ে মহাদেব সেজেছেন মীর। 
গলায় সাপ ঝুলিয়ে মহাদেব সেজেছেন মীর। 

Mir Afsar Ali: শিব-দুর্গাকে 'ব্যাঙ্গ' মীরের! নেটপাড়ার চ্যালেঞ্জ, ‘ধক থাকলে ইদেও মস্করা কোরো'

  • হিন্দু কট্টরবাদীদের রোষে ফের একবার পড়লেন মীর।

‘মির্চি’ মীরের একটা ভিডিও তোলপাড় ফেলে দিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফের কট্টর হিন্দুত্ববাদীদের রোষে পড়লেন মীর আফসার আলি। চলছে জোর চর্চা! অনেকের এতটাই গায়ে লেগেছে যে, সোজাসুজি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছেন তাঁরা মীরকে। 

‘মির্চি বাংলা’র পক্ষ থেকে সম্প্রতি একটা ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে। যেখানে দেখানো হয়েছে মীরকে শিব হিসেবে। আর আরজে শ্রীকে দেখানো হয়েছে দেবী দুর্গা রূপে। আরজে সায়ক সেজেছেন কার্তিক। কালো স্যান্ডো গেঞ্জি, কালো সানগ্লাস আর নীল জিন্স পরে গান গাইছেন মীর, ‘কে দিল মেরা দুগ্গা দুগ্গা বলে, কে বউ যাবে বাপের বাড়ি চলে’। তাঁর গলায় আবার জড়ানো আছে সাপ। 

‘মির্চি খুশির পুজো’র প্রথম এপিসোড দেখেই খাপ্পা নেটিজেনদের একটা অংশ। ‘তোমায় শুটকি মাছ মেখে নিজের হাতে খাইয়ে দিতাম’, ‘এত ভাইলেন্ট কেন দুর্গা তুমি’ বলা নিয়েও আপত্তি তুলেছেন কেউ কেউ। পরিষ্কার জানানো হয়েছে, হিন্দু দেব-দেবীদের নিয়ে মজা করা যতটা সহজ, তেমন কেন করা হয় না ইদ বা বড় দিনের আগে। যিশু বা নবিকে নিয়েও এরকমই ভিডিও বানানোর চ্যালেঞ্জও দেওয়া হয়েছে।

যদিও ধর্ম টেনে মীরকে কটাক্ষ করা কোনও নতুন ঘটনা নয়। যে কোনও হিন্দু পুজোর শুভেচ্ছা জানালেই মীরক নিয়ে চর্চা হয়েছে। অভিনেতা-আর জে সামাজিক মাধ্যমে ‘যতই সর্বধর্ম সম্বন্বয়’র বার্তা দিক, তা যেন কারও চোখেই পড়েনি। এবারেও ঠিক তেমনটাই হল। সঙ্গে নাম জড়াল রেডিও মির্চির।

বন্ধ করুন