বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > যৌনাঙ্গ স্পর্শ ছাড়াই 'অর্গ্যাজম', বিনা উত্তেজকে! যোগ প্রশিক্ষক নয়া পন্থার হদিশ দিতেই বিজ্ঞানীরা কী বলছেন?
অর্গ্যাজমের নয়া এই পন্থা ঘিরে ক্যারোলিনের দাবর প্রেক্ষিতে উঠে আসছে বৈজ্ঞানিকদের মতামতও।

যৌনাঙ্গ স্পর্শ ছাড়াই 'অর্গ্যাজম', বিনা উত্তেজকে! যোগ প্রশিক্ষক নয়া পন্থার হদিশ দিতেই বিজ্ঞানীরা কী বলছেন?

  • 'অর্গ্যাজম' যৌন উত্তেজনার চরম পর্যায়। পুরুষ ও নারী লিঙ্গভেদে এই 'অর্গ্যাজম'ওর পার্থক্য থাকে। এমন এক প্রক্রিয়ায় যৌন সুখানুভূতির সর্বোচ্চ পর্যায়ে যাওয়া যায়। প্রশ্ন হল, যৌন উত্তেজনা বা যৌন মিলন ছাড়া এমন সুখ আদৌ কি পাওয়া সম্ভব? যোগ প্রশিক্ষক ক্যারোলিন সারাস্কি বলছেন 'সম্ভব'।

ইস্তোনিয়ার ৩৩ বছরের যোগ প্রশিক্ষক ক্যারোলিন সারাস্কি। তিনি বলছেন, 'অর্গাসমিক এনার্জি' বাড়াতে মহিলাদের নিজস্ব বিশেষ কিছু ক্ষমতা থাকে। এই বিষয়ে তিনি তাঁর নয়া ভিডিয়োতে প্রকাশ্যে এনেছেন 'অর্গ্যাজম' নিয়ে নয়া এক পন্থার তথ্য।

'অর্গ্যাজম' ও নয়া পন্থার হদিশ!

উল্লেখ্য, 'অর্গ্যাজম' যৌন উত্তেজনার চরম পর্যায়। পুরুষ ও নারী লিঙ্গভেদে এই 'অর্গ্যাজম'ওর পার্থক্য থাকে। এমন এক প্রক্রিয়ায় যৌন সুখানুভূতির সর্বোচ্চ পর্যায়ে যাওয়া যায়। প্রশ্ন হল, যৌন উত্তেজনা বা যৌন মিলন ছাড়া এমন সুখ আদৌ কি পাওয়া সম্ভব? যোগ প্রশিক্ষক ক্যারোলিন সারাস্কি বলছেন 'সম্ভব'। আর তা তিনি অন ক্যামেরা নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলের ভিডিয়োতে তুলে ধরেছেন। ক্যারোলিন সারাস্কির দাবি, কেবলমাত্র ইচ্ছাশক্তির জোরেই অর্গ্যাজম করা সম্ভব। আর যৌন অনুভূতির এই চরম পর্যায় পাওয়া যাবে কয়েক সেকেন্ডে। এই তথ্য তিনি নিজের ভিডিয়োতে স্টপ ওয়াচ দিয় দেখিয়ে দিয়েছেন। তিনি দাবি করছেন, যৌনাঙ্গ স্পর্শ ছাড়াই এই অর্গ্যাজম করা যায়, এমনকি কোনও শস্যাসঙ্গী ছাড়াই যৌন উত্তেজনার তুঙ্গে পৌঁছানো যায় বলে দাবি এই যোগ প্রশিক্ষকের।

ক্যারোলিন সারাস্কি কে জানেন?

উল্লেখ্য, এই নামী যোগ প্রশিক্ষক ক্যারোলিনের কনসালটেশন চার্জ প্রতি আধ ঘণ্টায় ৬০ পাউন্ড। বহুদিন ধরে তিনি জটিল রোগ ভ্যাজাইনিসমাসে ভুগছেন। এই রোগের ফলে মহিলাদের যোনির পেশী কঠিন হয়ে পড়ে। ক্যারোলিন বলছেন, তাঁর এই শারীরিক সমস্যা থেকে রেহাই পেতেই তিনি এই নয়া পদ্ধতি অবলম্বন করছেন।

বিজ্ঞানীরা কী বলছেন?

সেক্স স্টাডিজে যে স্কেল ব্যবহার করা হয়, তা ব্যবহার করে এই প্রক্রিয়ায় ক্যারোলিনকে তাঁর অর্গ্যাজম রেট করতে বলেছেন বিজ্ঞানীরা। সেখানে দেখা যাচ্ছে, যে স্বাভাবিক ছন্দে যে অর্গ্যাজম হয়, আর ক্যারোলিনের পদ্ধতিতে অর্গ্যাজমের 'সুখ'একই। এছাড়াও তাঁর হরমোন ক্ষরও পরীক্ষা করেন বিজ্ঞানীরা। মনোবিদ জেমন ফওস বলছেন, একটি বিশেষ মেনস্ট্রুরাল পর্যায়ে ক্যারোলিন রয়েছেন বলে এমনটা হতে পারে। এদিকে, অর্গ্যাজম নিয়ে ক্যারোলিনের দাবির গোটা বিষয়টি সত্যি হতে পারে বলে অনুমান বিজ্ঞানীদের। তবে তাঁরা মনে করছেন, এই নিয়ে আরও গবেষণা প্রয়োজন।

বন্ধ করুন