বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সশস্ত্র বাহিনীতে বাড়ছে নারীদের সংখ্যা,১৭০০ নারীকে নিয়োগ করা হবে মিলিটারি পুলিশে
অসম রাইফেলস (ফাইল ছবি : এএনআই)

সশস্ত্র বাহিনীতে বাড়ছে নারীদের সংখ্যা,১৭০০ নারীকে নিয়োগ করা হবে মিলিটারি পুলিশে

  • নৌবাহিনীতে অফিসার পর্যায়ে ৬ শতাংশ নারীদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে; এবং বায়ুসেনায় ১.০৮ শতাংশ নারী।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রক শুক্রবার সংসদকে জানায়, বিভিন্ন অন্তর্ভুক্তি পদ্ধতির মাধ্যমে সমস্ত সশস্ত্র বাহিনীতেই নারী প্রতিনিধিত্বের সংখ্যা বাড়ছে। মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুসারে, সেনাবাহিনীতে মহিলাদের শতকরা হার ০.৫৯ শতাংশ। এর মধ্যে রয়েছে আর্মি মেডিকেল কর্পস, এইড দে ক্যাম্প এবং মিলিটারি নার্সিং সার্ভিস; নৌবাহিনীতে অফিসার পর্যায়ে মোট সংখ্যার ৬ শতাংশ  নারীদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে; এবং বায়ুসেনায় ১.০৮ শতাংশ নারী। বিজেপি সাংসদ ভোলা সিংয়ের প্রশ্নের উত্তরে লোকসভায় প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী অজয় ​​ভাট এই পরিসংখ্যান তুলে ধরেন।

রাষ্ট্রমন্ত্রী ভাট বলেন, ‘সরকার পর্যায়ক্রমে সামরিক পুলিশ কর্পসে ১৭০০ জন মহিলাকে নথিভুক্ত করার জন্য অনুমোদন দিয়েছে। মহিলা সামরিক পুলিশ কর্মীদের প্রথম ব্যাচ তাঁদের প্রশিক্ষণ শেষ করেছে এবং ইউনিটগুলিতে রিপোর্ট করেছে।’ তাছাড়া প্রতিরক্ষা বাহিনী ২০২২ সালের জুলাই থেকে ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যাকাডেমিতে মহিলা প্রার্থীদের প্রশিক্ষণ নেওয়ার অনুমতি দিয়েছে। এর জন্য ২০২১ সালের ১৪ নভেম্বর লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

প্রতিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বর্তমানে জাহাজে ২৯ জন নারী কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়েছে। মন্ত্রী এই বিষয়ে বলেন, ‘ভারতীয় নৌবাহিনীতে মহিলা অফিসারদের যুদ্ধজাহাজে নিয়োগ করা হয়। ২০১৯ সাল পর্যন্ত, মহিলা অফিসাররা কেবল উপকূল ভিত্তিক বিমানের জন্য পাইলট এবং পর্যবেক্ষক হিসাবে কমিশন করা হত। এখন পুরুষ অফিসারদের সাথে সমানভাবে মহিলাদের নিয়োগ করা হয়। মহিলা অফিসারদেরও ২০২০ থেকে হেলিকপ্টারে বিশেষজ্ঞ পর্যবেক্ষক হিসাবে নিয়োগ করা হয়েছে।‘ মন্ত্রী আরও জানান, মোবাইল ট্রেনিং টিম এবং অন্যান্য বিদেশী সহযোগিতামূলক কর্মকান্ডের অংশ হিসাবে মহিলা অফিসারদেরও স্বল্প সময়ের জন্য বিদেশে নিযুক্ত করা হয়।

বন্ধ করুন