বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বজরঙ দল সদস্যের মৃত্যুতে ভিতরে-বাইরে চাপে কর্নাটকের বোম্মাই সরকার, গ্রেফতার তিন

বজরঙ দল সদস্যের মৃত্যুতে ভিতরে-বাইরে চাপে কর্নাটকের বোম্মাই সরকার, গ্রেফতার তিন

বডরঙ দল সদস্য় হর্ষের মৃত্যুতে উত্তাল শিবমোগা (পিটিআই) (HT_PRINT)

প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হর্ষবর্ধন রাঠোর, গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত এই ঘটনার নিন্দা জানান।

হিজাব বিতর্কে এমনিতেই উত্তপ্ত কর্নাটক। এরই মাঝে রবিবার রাতে সেরাজ্যের শিবমোগা জেলায় খুন হন এক বজরঙ দলের সদস্য। এই আবহে ক্রমেই আরও ঘোরালো হয়ে উঠেছে দক্ষিণের এই রাজ্যের পরিস্থিতি। আর বাসবরাজ বোম্মাইয়ের সরকার ঘরে বাইরে এই নিয়ে চাপে রয়েছে। একদিকে যেখানে রাজ্য সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অরগা জ্ঞানেন্দ্র দাবি করেন যে এই হত্যাকাণ্ডের সাথে হিজাব বিতর্কের যোগ নেই। যদিও বিজেপির অন্দরে এই ঘটনা নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। কর্নাটকের মাইসোর-কোডাগুর বিজেপি সাংসদ এই ঘটনা লজ্জার বলে আখ্যা দিয়েছেন। রাজ্যের মন্ত্রী ইএস ঈশ্বরাপ্পা সরাসরি এই ঘটনার জন্য ‘মুসলিম গুন্ডা’দের দোষারোপ করেছেন। এদিকে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা সিদ্দারামাইয়াও সরকারকে তোপ দেগেছেন। এই আবহে শিবমোগার ঘটনায় বেঙ্গালুরুর জগজীবন রাম নগর থেকে তিনজনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে বলে জানা গিয়েছে।

রবিবার রাতে শিবমোগা জেলা সদর শহরে ২৩ বছর বয়সী হর্ষকে খুন করা হয়। পেশায় একজন দর্জি হর্ষ বজরঙ দল সদস্য হিসেবে পরিচিত ছিলেন। তিনি কয়েকদিন আগেই হিজাবের বিরোধিতা করে পোস্ট করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। পাশাপাশি অভিন্ন দেওয়ান বিধির পক্ষেও বারংবার সওয়াল করেছেন তিনি। এহেন হর্ষকে রবিবার চার থেকে পাঁচজন অজ্ঞাতপরিচয় লোক হত্যা করে। এরপরই জেলা জুড়ে সহিংস বিক্ষোভের ঘটনা ঘটতে শুরু করে। সারা দেশ থেকে ভারতীয় জনতা পার্টির নেতারা এর নিন্দা করতে থাকেন। প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হর্ষবর্ধন রাঠোর, গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত এই ঘটনায় শোকের পাশাপাশি ক্ষোভও প্রকাশ করেন।

এদিকে হর্ষের শেষ যাত্রায়ও হিংসা ছড়ায় বলে জানিয়েছে পুলিশ। ঘটনায় এক চিত্রসাংবাদিক, মহিলা পুলিশকর্মী সহ অনেকেই জখম হন। এরপরই শহরজুড়ে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়। জারি করা হয় ১৪৪ ধারা। শিবমোগা পুলিশ জানিয়েছে যে হর্ষের আততায়ীরা তাঁকে আক্রমণ করার আগে একটি গাড়িতে তাঁকে তাড়া করেছিল। ঘটনার পর তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, সেখানেই তিনি মারা যান।

এই ঘটনার প্রেক্ষিতে হর্ষের ভাই বলেন, ‘আমার ছোট ভাই আজ মৃত কারণ সে 'জয় রাম, শ্রী রাম' স্লোগান দিত। কারণ সে নিজেকে 'হিন্দু হর্ষ' বলে ডাকত। গতকাল (রবিবার) রাতে সে রাতের খাবার খেতে বাসা থেকে বের হয়। রাত সাড়ে আটটার দিকে, আমরা একটি ভিডিয়ো পাই এবং লোকেরা আমাদের জানায় যে আমার ভাইকে হত্যা করা হয়েছে। মানুষ কীভাবে এত নিষ্ঠুর হতে পারে, ভাবাই যায় না। তাদের কি সন্তান নেই? আমি সকল যুবকদের কাছে প্রার্থনা করি, হিন্দু-মুসলিম উভয়ই, তোমরা তোমাদের পিতামাতার ভালো সন্তান হও। বাকিটা ভুলে যাও।’

ঘরে বাইরে খবর
বন্ধ করুন

Latest News

অসত্য বলছেন অভিষেক, শাহজাহানের গ্রেফতারিতে কোনও স্থগিতাদেশ দেয়নি হাইকোর্ট: বিকাশ ‘মিকার গান চালিয়ে বোকা বানাচ্ছেন!’ দাদাগিরিতে কেশবের গান শুনে কটাক্ষ, সত্য়িটা কী 'দাদা নিজের গান ভুলে গেছেন?' কুমার শানুকে শুধরে দিলেন শ্রেয়া, উর্মিলার সাধ পূরণ চোখের তলার কালো দাগ উধাও হবে ৭ দিনে! এই ঘরোয়া প্রতিকারের কেরামতি অঢেল ট্রেনে ছিলেন না চালক! ঘণ্টায় ১০০ কিমি গতিতে দৌড়ল মালগাড়ি ‘‌তৃণমূলের সরকার যতদিন বাংলায় থাকবে কেউ ভাতে মারতে পারবে না’‌, তোপ অভিষেকের দ্বারকায় সাগরজলের গভীরে নেমে পুজো মোদীর, অর্পণ করলেন ময়ূরপুচ্ছ ও ভাই… তোমায় হিরো হতে হবে না- সরফরাজ খানকে মাঠের মধ্যেই ধমক দিলেন রোহিত শর্মা শুভেন্দুর গড়ে আবার হার বিজেপির, এগরা সমবায় সমিতির নির্বাচনে বিপুল জয় তৃণমূলের 'জনগর্জন'-এর ব্রিগেডে অবিজেপি দলগুলিকে আমন্ত্রণ? জবাব দিলেন অভিষেক

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.