বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পুলিশের লাগাতার মামলায় অতিষ্ঠ হয়ে প্রকাশ্য রাস্তায় মোটরবাইক জ্বালিয়ে দিলেন যুবক
ঢাকার রাস্তায় জ্বলছে মোটরসাইকেল।
ঢাকার রাস্তায় জ্বলছে মোটরসাইকেল।

পুলিশের লাগাতার মামলায় অতিষ্ঠ হয়ে প্রকাশ্য রাস্তায় মোটরবাইক জ্বালিয়ে দিলেন যুবক

  • মামলা দিতে উদ্যত হলে রাস্তার পাশে মোটরসাইকেল দাঁড় করিয়ে তাতে আগুন ধরিয়ে দেন যুবক। মুহূর্তে দাউদাউ করে জ্বলতে থাকে মোটরসাইকেলটি।

পুলিশের মামলায় অতিষ্ঠ হয়ে প্রকাশ্য রাজপথে নিজের মোটরসাইকেল নিজেই জ্বালিয়ে দিলেন এক ব্যক্তি। সোমবার সকাল ১০টা নাগাদ এই ঘটনা ঢাকা শহরের। ঢাকার বাড্ডা লিং রোডে পুলিশি তল্লাশির সময় রাস্তার ধারে মোটরসাইকেল দাঁড় করিয়ে আগুন ধরিয়ে দেন অ্যাপ ভিত্তিক রাইড পরিষেবার ওই চালক। পরে যদিও ব্যক্তিগত হতাশায় আগুন ধরিয়েছেন বলসে জানান তিনি।

সেদেশের সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুসারে, সোমবার সকাল ১০টা নাগাদ বাড্ডা লিং রোডে শওকত আলম নামে ওই অ্যাপ ভিত্তিক রাইড পরিষেবার চালককে দাঁড় করান ঢাকা পুলিশের এক আধিকারিক। তাঁকে মামলা দিতে উদ্যত হলে রাস্তার পাশে মোটরসাইকেল দাঁড় করিয়ে তাতে আগুন ধরিয়ে দেন যুবক। মুহূর্তে দাউদাউ করে জ্বলতে থাকে মোটরসাইকেলটি। এমনকী স্থানীয়রা জল দিয়ে আগুন নেভাতে এলে তিনি বাধা দেন। এর পর যুবককে বাড্ডা থানায় নিয়ে যান আধিকারিকরা। সেখানে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের পর মুক্তি দেওয়া হয়।

থানা থেকে বেরিয়ে যুবক জানান, রাগের মাথায় নিজের ক্ষতি করলাম। গত সপ্তাহে পুলিশ আমাকে মামলা দেয়। এই সপ্তাহের শুরুতেই ফের মামলা দিতে চাইলে মাথা গরম হয়ে গিয়েছিল। তাই মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দিই।

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, যুবক ঢাকার কেরানিগঞ্জের বাসিন্দা। তাঁর একটি দোকান রয়েছে। কিন্তু লকডাউনে দোকান খুলতে পারছিলেন না তিনি। তাই গত দেড় মাস ধরে অ্যাপ ভিত্তিক রাইড পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত হন। হতাশা থেকেই এমন কাজ করেছেন তিনি।

 

বন্ধ করুন