বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জিন্না সেন্টারের নাম বদলাতে হবে, নয়া দাবি বিজেপির, জানুন কবে তৈরি এই টাওয়ার?
অন্ধ্র প্রদেশের গুন্টুরে রয়েছে এই জিন্না টাওয়ার

জিন্না সেন্টারের নাম বদলাতে হবে, নয়া দাবি বিজেপির, জানুন কবে তৈরি এই টাওয়ার?

  • বিজেপির দাবি, ভারত ভাগের অন্যতম কারিগর জিন্নার নামে ওই টাওয়ারটি রয়েছে।

মুসলিম শাসকদের নাম জড়়িয়ে রয়েছে দেশের এমন একাধিক জায়গার নাম পরিবর্তনের দাবিতে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে গেরুয়া শিবির। এবার সেই নাম পরিবর্তনের তালিকায় যুক্ত হল অন্ধ্র প্রদেশের গুন্টুরের জিন্না টাওয়ারের নাম। পাকিস্তানের শ্রষ্টা বলে পরিচিত মহম্মদ আলি জিন্নাহর নামে এই টাওয়ার তৈরি করা হয়েছিল বলে কথিত রয়েছে। সেই টাওয়ারের নাম বদলে ফেলার দাবিতে সরব বিজেপি নেতৃত্ব। স্থানীয় সূত্রে খবর, গুন্টুর শহরে ১৯৪৫ সাল নাগাদ মহাত্মা গান্ধী রোডের উপর তৈরি হয়েছিল এই জিন্না টাওয়ার। ৬টি পিলারের উপর তৈরি হয়েছিল এই পিলার। মাথায় রয়েছে একটি সুবিশাল গম্বুজ। সবুজ রঙের এই টাওয়ারটি শান্তি ও সম্প্রীতির প্রতীক বলে পরিচিত। জায়গাটি জিন্নাহ সেন্টার বলে পরিচিত। তবে এবার ওই টাওয়ারের নাম বদলে ফেলার দাবিতে সরব বিজেপি নেতৃত্ব।

বিজেপির দাবি, ভারত ভাগের অন্যতম কারিগর জিন্নার নামে ওই টাওয়ারটি রয়েছে। বিজেপির সর্বভারতীয় সম্পাদক ওয়াই সত্যকুমার বৃহস্পতিবার সকালে টুইট করে জানিয়েছেন, ওই টাওয়ারটি জিন্নার নামে করা হয়েছে। এলাকাটি জিন্না সেন্টার নামে পরিচিত। মজার ঘটনা যে, এটা পাকিস্তানে নয়, এটা অন্ধ্রপ্রদেশের গুন্টুর শহরে। ভারতের বিরুদ্ধে চক্রান্তকারীর নামে এই সেন্টারের নামকরণ করা হয়েছে। কেন এটি ডঃ কালামের নামে অথবা দলিত কবি গুরাম জাসুভার নামে হবে না? এদিকে তারপর থেকেই বিজেপি নেতৃত্ব ওই টাওরের নাম বদলের দাবিতে সরব হয়েছেন। এদিকে ২০১৭ সালে পাকিস্তান সরকার এই টাওয়ারের কথা উল্লেখ করে জানিয়েছিল, পাকিস্তানের জনকের নামে এটি করা হয়েছিল। কংগ্রসের দাবি, স্বাধীনতার আগে এটি তৈরি হয়েছিল। বিজেপি সম্প্রীতি নষ্টের চেষ্টা করছে।

বন্ধ করুন