বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আজই দিল্লিতে ৪৯০ মেট্রিক টন অক্সিজেন পাঠান, নাহলে আদালত অবমাননার মুখে পড়তে হবে, কেন্দ্রকে বলল হাইকোর্ট
দিল্লিতে অক্সিজেনের আকাল নিয়ে হাইকোর্টের তীব্র ভর্ৎসনার মুখে পড়ল কেন্দ্র। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
দিল্লিতে অক্সিজেনের আকাল নিয়ে হাইকোর্টের তীব্র ভর্ৎসনার মুখে পড়ল কেন্দ্র। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

আজই দিল্লিতে ৪৯০ মেট্রিক টন অক্সিজেন পাঠান, নাহলে আদালত অবমাননার মুখে পড়তে হবে, কেন্দ্রকে বলল হাইকোর্ট

  • দিল্লিতে অক্সিজেনের আকাল নিয়ে হাইকোর্টের তীব্র ভর্ৎসনার মুখে পড়ল কেন্দ্র।

দিল্লিতে অক্সিজেনের আকাল নিয়ে হাইকোর্টের তীব্র ভর্ৎসনার মুখে পড়ল কেন্দ্র। দিল্লি হাইকোর্ট কড়া সুরে কেন্দ্রকে শনিবারের মধ্যে দিল্লির জন্য বরাদ্দ ৪৯০ মেট্রিক টন অক্সিজেন দেওয়ার নির্দেশ দিল। আর তা না পারলে আদালত অবমাননার মুখে পড়তে হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেওয়া হল।

শনিবার দিল্লির বাটরা হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে আটজনের মৃত্যুর ঘটনায় রীতিমতো উষ্মা প্রকাশ করেছে দিল্লি হাইকোর্ট। কেন্দ্রকে কড়া ভাষায় বলেছে, ‘যথেষ্ট হয়েছে।’ বিচারপতি বিপিন সাংঘি এবং বিচারপতি রেখা পাল্লির ডিভিশন বেঞ্চ কেন্দ্রকে প্রশ্ন করেছে, ‘আপনারা কি বলতে চাইছেন যে দিল্লিতে মানুষ মারা যাচ্ছেন, আর আমরা চোখ বন্ধ করে থাকব?’ সেখানেই থামেনি দিল্লি হাইকোর্ট। ডিভিশন বেঞ্চ বলেছে, ‘আমরা কাজ বলতে চাইছি। মাথার উপরে জল চলে গিয়েছে।’ 

দিল্লি হাইকোর্টে শুনানির কয়েক ঘণ্টা আগে শনিবার সকাল বাটলা হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে আটজন করোনাভাইরাস আক্রান্তের মৃত্যু হয়। তাঁদের মধ্যে একজন ওই হাসপাতালেরই চিকিৎসক ছিলেন। হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, যে সংস্থার থেকে অক্সিজেন পাওয়ার কথা ছিল, তাদের থেকে অক্সিজেন মেলেনি। সকাল সাতটা নাগাদ তা সরকার-নিযুক্ত আধিকারিকদের জানানো হয়। কিন্তু তাতেও কোনও কাজ হয়নি। বেলা ১২ টা ১৫ মিনিট নাগাদ হাসপাতাল পুরোপুরি অক্সিজেনশূন্য হয়ে পড়ে। প্রয়োজনের তুলনায় কম অক্সিজেন দেওয়া হয়েছিল বলেও হাসপাতালের তরফে অভিযোগ তোলা হয়েছে। হাসপাতালের এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর সুধাংশু বাঙ্কাটা বলেন, 'এটা আটে থামবে না। রোগীর অবস্থার অবনতি হলে আপনি ঠিক করতে পারবেন না।' মৃতের সংখ্যা আরও বাড়বে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

বন্ধ করুন