বাড়ি > ঘরে বাইরে > অদূর ভবিষ্যতে সভাপতি নির্বাচন,ততদিন অন্তর্বর্তীকালীন দায়িত্বে সোনিয়াই : কংগ্রেস
কংগ্রেসের অন্তবর্তীকালীন সভাপতি সোনিয়া গান্ধী (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)
কংগ্রেসের অন্তবর্তীকালীন সভাপতি সোনিয়া গান্ধী (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)

অদূর ভবিষ্যতে সভাপতি নির্বাচন,ততদিন অন্তর্বর্তীকালীন দায়িত্বে সোনিয়াই : কংগ্রেস

  • গত বছর ১০ অগস্ট সোনিয়াকে দলের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি হিসেবে ঘোষণা করেছিল কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটি।

কংগ্রেসের অন্তবর্তীকালীন সভাপতি হিসেবে সোনিয়া গান্ধীর মেয়াদ বাড়ছে। একইসঙ্গে যতদিন না পর্যন্ত নয়া সভাপতি নির্বাচনের প্রক্রিয়া শেষ হচ্ছে, ততদিন সেই পদে থাকবেন সোনিয়াই।

কংগ্রেসের এক কর্তা জানিয়েছেন, স্থায়ী সভাপতি নির্বাচিত না হওয়ায় দলের সংবিধান অনুযায়ী সোনিয়ার মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে নির্বাচন কমিশনকেও আগেভাগে সেই তথ্য জানাতে হবে কংগ্রেসকে।

শতাব্দীপ্রাচীন দলের দাবি, করোনাভাইরাস এবং দেশজুড়ে লকডাউনের জেরে স্থায়ী সভাপতি নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু করা যায়নি। কংগ্রেসের ওই কর্তা বলেন, 'তাঁর (সোনিয়ার) নিয়োগের পরপরই গত বছর অক্টোবর-নভেম্বরে মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় ভোট ছিল। তারপরই ছিল ঝাড়খণ্ড এবং দিল্লির (বিধানসভা ভোট)। তারপর কোভিড ১৯-এর ধাক্কা লাগল।'

গত বছর ১০ অগস্ট সোনিয়াকে দলের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি হিসেবে ঘোষণা করেছিল কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটি। তার আগে দলের একাংশের অনুরোধ সত্ত্বেও কংগ্রেসের শীর্ষ পদ থেকে পদত্যাগ করেন রাহুল গান্ধী। সেই পরিস্থিতিতে সভপতি নির্বাচনের প্রয়োজন ছিল। তবে স্থায়ী সভাপতির নির্বাচন প্রক্রিয়া স্থগিত থাকলে অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি মনোনয়নের ক্ষমতা আছে ওয়ার্কিং কমিটির হাতে। বিষয়টি নিয়ে কংগ্রেসের মুখপাত্র অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি বলেন, ‘না প্রকৃতি, না রাজনীতি, না রাজনৈতিক দল কোনও শূন্যস্থান মেনে নেয় বা অনুমোদন দেয়। প্রকৃতি যেমন কোনও শূন্যস্থানকে চরম ঘৃণা করে, তেমনই শূন্যস্থানের মধ্যে কোনও রাজনৈতিক দল কাজ চালাতে পারে না। এটা সত্যি যে, (সোনিয়ার) মেয়াদ শেষ হচ্ছে। নির্বাচন নিয়ে সংবিধানের একটি বিধিবদ্ধ প্রক্রিয়া আছে।’

নির্বাচন ছাড়াই অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি নিয়ে দল চালানোর জন্য বিজেপির আক্রমণের মুখে পড়ার যে সম্ভাবনা রয়েছে, আগেভাগেই তারও উত্তর খুঁজতে শুরু করেছে কংগ্রেস। সিঙ্ঘভি বলেন, ‘১০ অগস্ট মধ্যরাতে কংগ্রেস মস্তকহীন হয়ে যাবে বলে যদি কেউ দাবি করেন, তা কি সম্ভব? ১০ অগস্ট মধ্যরাতে হওয়াটা কি কোনও সংবিধানের উপযুক্ত ব্যাখ্যা এবং হঠাৎ পদটি খালি হয়ে যাবে? কেউ সেটা বলতে পারেন না। এমনি মতামতের কোনও দাম নেই, কারণ সেগুলির সঙ্গে সাধারণ বিচারবুদ্ধির সাযুজ্য থাকতে হবে।’

বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা জানান, দ্রুত নয়া সভাপতি নির্বাচনের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে। ততদিন দলের শীর্ষে থাকবেন সোনিয়া। সিঙ্ঘভি বলেন, ‘সোনিয়া গান্ধীজি হলেন সভাপতি এবং যতদিন পর্যন্ত না উপযুক্ত প্রক্রিয়ার প্রণয়ন হচ্ছে, তিনি কাজ চালিয়ে যাবেন। তা যে ভবিষ্যতে অনেক পরে রূপায়ণ হবে, তেমনটা মোটেও না। সেটা একেবারেই সহজ।’

বন্ধ করুন