বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বাংলাদেশের টিনার সঙ্গে তামিলনাড়ুর সুবিক্ষার বিয়ে! আরও এক লড়াইয়ের শেষে মিটল বহু বছরের অপেক্ষার পালা
বিয়ের ছবি ভাইরাল হতে থাকে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ছবি সৌজন্য- টুইটার/@Satyamev1310

বাংলাদেশের টিনার সঙ্গে তামিলনাড়ুর সুবিক্ষার বিয়ে! আরও এক লড়াইয়ের শেষে মিটল বহু বছরের অপেক্ষার পালা

  • 'এটার আমরা স্বপ্ন দেখেছিলাম। তবে ভাবিনি এটা সফল হবে,' বলছেন সুবিক্ষা। তামিল ব্রাহ্মণ পরিবারের মেয়ে সুবিক্ষার সঙ্গে বাংলাদেশের টিনার সম্পর্ক পার করেছে ৬ বছর। তাঁরা ৬ বছর ধরে অপেক্ষা করে ছিলেন এই দিনটির জন্য। তাঁরা বলছেন বহু বছর ধরে তাঁরা নিজেদের লড়াই করার পর শেষমেশ বাড়ির সকলকে বোঝাতে পেরেছিলেন তাঁদের অবস্থান।

আদ্যোপান্ত তামিল ব্রাহ্মণদের রীতি পরম্পরা মেনে সুবিক্ষা বসেছিলেন তাঁর বাবার কোলে। তারপর পরম্পরা মেনে বিয়ে হল। বদল হল মালা। আর চার পাঁচটা বিয়েতে যেমন হয়। চেন্নাইতে এক মহাসমারোহে রাজকীয় বিয়ে হল বাংলাদেশের টিনা দাসের সঙ্গে তামিলনাড়ুর সুবিক্ষা সুব্রহ্মণ্যমের।

'এটার আমরা স্বপ্ন দেখেছিলাম। তবে ভাবিনি এটা সফল হবে,' বলছেন সুবিক্ষা। তামিল ব্রাহ্মণ পরিবারের মেয়ে সুবিক্ষার সঙ্গে বাংলাদেশের টিনার সম্পর্ক পার করেছে ৬ বছর। তাঁরা ৬ বছর ধরে অপেক্ষা করে ছিলেন এই দিনটির জন্য। তাঁরা বলছেন বহু বছর ধরে তাঁরা নিজেদের লড়াই করার পর শেষমেশ বাড়ির সকলকে বোঝাতে পেরেছিলেন তাঁদের অবস্থান। তাঁরা বলছেন, বাড়ির সকলে যখন তাঁদের পাশে রয়েছেন, তখন তাঁরা খুবই খুশি এই বিয়ের প্রতিটি পরত নিয়ে। সুবিক্ষার বয়স ২৯ বছর। বর্তমানে 'ডেলয়েটে'র চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট হিসাবে তিনি রয়েছেন। তিনি বলছেন ১৯ বছর বয়সেই তিনি নিজের বক্তব্য জানিয়েছিলেন পরিবারকে। সুবিক্ষার মা বলছেন, তাঁদের ভয় ছিল তাঁদের পরিবারকে নিয়ে। সুবিক্ষারা কানাডায় যাওয়ার পর তাঁর মা এই বিষয়টি সম্পর্কে জানেন। ৪৮ ঘণ্টায় হার্ট ১৩৮ বার স্তব্ধ হয়! প্রাণে রক্ষা করল অ্যাপেল ওয়াচ-র সচেতন বার্তা

অন্যদিকে টিনার বয়স ৩৫। এর আগে টিনা একটি বিবাহবন্ধনে যুক্ত হন। সেখানে এক 'হেটেরোসেক্সুয়াল' ব্যক্তির সঙ্গে তিনি সংসারে প্রবেশ করেন। তবে সেই সম্পর্ক বেশি দিন স্থায়ী হয়নি। বিয়ে ছেড়ে বেরিয়ে আসেন টিনা। টিনা বলছেন, তাঁরা বাবা মা বিশ্বাস করতেন যে তাঁর কোন রোগ রয়েছে, যে কারণে টিনা সমলিঙ্গ। তবে ভুল ধারণা ভাঙতে সময় লাগে। ততদিনে ১৯ বছর বয়সে টিনার বিয়ে দেওয়া হয়। শেষে টিনার বাড়ির কেউ তাঁর সঙ্গ দিতে চাননি। তবে তাঁর খুড়তুতো ভাই দিয়েছেন টিনার সঙ্গ। টিনার দিদি যদিও তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেন বহু আগেই। তবে টিনার বাড়ির বাকিরা ছিলেন তাঁর পাশে।

বন্ধ করুন